বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ❙ ২৪ মাঘ ১৪২৯

সচিবালয়ের ১ নম্বর ভবন ঝুঁকিপূর্ণ: মন্ত্রিপরিষদ সচিব

এসবিনিউজ ডেস্ক: সচিবালয়ের এক নম্বর ভবন ঝুঁকিপূর্ণ বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। সচিবালয়ের ভবনগুলোতে আগুনের ঝুঁকি কম হলেও ভূমিকম্পের ক্ষেত্রে তুলনামূলক ঝুঁকিপূর্ণ।
সোমবার (০৮ এপ্রিল) সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব তথ্য জানান সচিব।
এর আগে সকাল ১০ টায় তেজগাঁওস্থ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সচিবালয়ের ১নং ভবন ঝুঁকিপূর্ণ। তবে শিগগিরই সচিবালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের বিষয়ে সব বিভাগের সঙ্গে আলোচনায় বসে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ বৈঠকের আয়োজন করবে।
সচিবালয়ের ভেতরে মসজিদের পাশে একটি ২০ তলা ভবন নির্মাণ করা হবে বলেও এসময় জানানো হয়।
বৈঠকে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত আনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন নিয়ে আলোচনা হয়। এ তিন মাসে বৈঠক হয়েছে পাঁচটি। গৃহিত সিদ্ধান্ত ৩৬টি। বাস্তবায়িত সিদ্ধান্ত ২৪টি। এ সময় অনুমোদিত পাঁচটি আইন সংসদে পাস হয়েছে।
মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, দাউকিতে ভূমিকম্পের যে আধুনিক সিগন্যালটি আছে সেটি নাড়া দেওয়ার দুই মিনিট পর আমাদের এখানে আসবে। আর আমরা যদি দুই মিনিট আগে সিগন্যাল পাই তাহলে ভবনটি খালি করতে পারবো। সব লোক মাঠে চলে যাবে, এটা সম্ভব। তবে সিগন্যালটি আসতে হবে।
সচিব বলেন, ভৌগলিক কারণেই দাউকি থেকে ঢাকা ভূমিকম্প পৌঁছাতে দুই মিনিট সময় লাগবে। এই দুই মিনিট সময় পেলেই ঢাকা শহরে যারা আছে তাদের সতর্ক করা যাবে এবং তারা সবাই সরে যেতে পারবে।
অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পিডাব্লিউডির বিল্ডিংগুলোতে সার্কিট ব্রেকার আছে। তাই কোনো কারণে শর্টসার্কিট হলে বিদ্যুৎ বন্ধ হয়ে যাবে। ফলে এ ক্ষেত্রে ঝুঁকি কম। আমাদের ভবনগুলো ম্যাচ বক্সের মতো। আর এফআর টাওয়ার ছিল বাক্সের মতো। এতে কোনো জানালা নেই, কাঁচ দিয়ে ঘেরা।
সচিবালয়ের ভবনগুলোর অগ্নিকাণ্ডের ঝুঁকি এড়াতে বৈঠক ডাকা হবে জানিয়ে সচিব বলেন, পিডাব্লিউডি এরই মধ্যে ব্যবস্থা নিচ্ছে। ভবনগুলোতে পুরনো যে ফায়ার এক্সটিংগুইসার আছে সেগুলোর মেয়াদ আছে কি না সেটি দেখছে। আমরা এ বিষয়ে মিটিং ডেকে সিদ্ধান্ত নেবো।

Related posts