বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

ষোড়শ সংশোধনীর আপিল শুনানিতে ১২ অ্যামিচি কিউরি

এসবিনিউজ ডেস্ক : সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণার রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের শুনানিতে ১২ জন জ্যেষ্ঠ আইনজীবীর কাছে আইনি ব্যাখ্যা ও মতামত শুনবে সর্বোচ্চ আদালত।

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে আট সদস্যের আপিল বিভাগ বুধবার অ্যামিকাস কিউরি (আদালতের আইনি সহায়তাকারী) হিসেবে ১২ জন আইনজীবীর নাম ঘোষণা করে।

এই ১২ জন হলেন- ড. কামাল হোসেন, এম আমীর-উল ইসলাম, এ এফ হাসান আরিফ, আজমালুল হোসেন কিউসি, রফিক-উল হক, আবদুল ওয়াদুদ ভূইয়া, রোকনউদ্দিন মাহমুদ, টিএইচ খান, এমআই ফারুকী, শফিক আহমেদ, এজে মোহাম্মদ আলী ও ফিদা এম কামাল।

তিন বছর আগে সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে আনা হয়।

এরপর সুপ্রিম কোর্টের ৯ আইনজীবীর করা একটি রিট আবেদনে দেওয়া রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী, বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাই কোর্ট বেঞ্চ গত ৫ মে সংখ্যাগরিষ্ঠের মতের ভিত্তিতে ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ করে রায় দেয়।

রায়ে বলা হয়, “সংসদের মাধ্যমে বিচারকগণের অপসারণ প্রক্রিয়া ইতিহাসের একটি দুর্ঘটনা।”

ওই রায়ের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আপিল করলে গত ৫ জানুয়ারি বিষয়টি প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন চার বিচারকের বেঞ্চ ওঠে। আদালত সেদিন জানায়, ৮ ফেব্র“য়ারি এ বিষয়ে আপিল বিভাগের ‘ফুলবেঞ্চে’ শুনানি হবে।

সে অনুযায়ী বুধবার আপিল আবেদনটি আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে ওঠে। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আর রিট আবেদনকারী পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

অ্যাটর্নি জেনারেল আপিলের ওপর শুনানির প্রস্তুতির জন্য আট সপ্তাহ সময় চাইলে আদালত ৭ মার্চ শুনানির তারিখ রেখে বলে, এরকম গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়ের নিষ্পত্তিতে বিলম্ব করা উচিৎ নয়।

আদেশে বলা হয়, ৭ মার্চ রিটকারী ও রাষ্ট্রপক্ষকে তাদের বক্তব্য মৌখিকভাবে উপস্থাপনের জন্য এক ঘণ্টা করে সময় দেওয়া হবে। পাশাপাশি তাদের লিখিতভাবে যুক্তি উপস্থাপন করতে হবে।

পাশাপাশি এ বিষয়ে আইনি ব্যাখ্যা শোনার জন্য ১২ জন অ্যামিচি কিউরির নাম ঘোষণা করেন প্রধান বিচারপতি।

Related posts