বুধবার, ৩ মার্চ ২০২১ | ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

শিশুর প্রথম সুরক্ষার দায়িত্ব অভিভাবকের: মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার: নগরীতে হাম-রুবেলা টিকাদান ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন শনিবার (১২ ডিসেম্বর) খুলনা খালিশপুর কলেজিয়েট গার্লস স্কুল অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক এই ক্যাম্পেইনের উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধনকালে সিটি মেয়র বলেন, শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। শিশুদের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ গড়তে যা যা করণীয় সরকার সব কিছুই করছে। শিশুদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে সরকার টিকাদান ক্যাম্পেইন বাস্তবায়ন করছে। হাম-রুবেলা ভাইসারজনিত মারাত্মক রোগ। শিশুদের প্রথম সুরক্ষার দায়িত্ব অভিভাবকের। এ রোগের প্রকোপ থেকে শিশুকে বাঁচানোর জন্য নয় মাস থেকে ১০ বছরের কম বয়সী সকল শিশুকে এক ডোজ এমআর টিকা প্রদান করা হবে। তিনি বলেন, সকলের সার্বিক প্রচেষ্টায় মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যুহার হ্রাস পেয়েছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সরকার মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক করেছে। মাস্ক ব্যবহার করলে ৭৫ শতাংশ করোনাভাইরাস প্রতিরোধে করা সম্ভব। মেয়র নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শিশুদের টিকা কেন্দ্রে নিয়ে আসার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কেসিসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ কান্তি বালা, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পারভীন আক্তার, খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের উপপরিচালক ডাঃ শামীম আরা নাজনীন, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাইদুল ইসলাম, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বিভাগীয় সমন্বয়কারী ডাঃ মোঃ আরিফুর রহমান প্রমুখ। ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মুন্সি আব্দুল ওয়াদুদ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। স্বাগত জানান কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ একেএম আব্দুল্লাহ। এসময় ১১, ১২, ৮, ৯, ২, ৫, ১৪ ও ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলরসহ সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর উপস্থিত ছিলেন।
এবারে নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে এক লাখ ৭৫ হাজার দুইশত শিশুকে হাম-রুবেলা টিকা দেওয়া হবে। নয় মাস থেকে ১০ বছরের কম বয়সী শিশুকে এ টিকা দেওয়া হবে। এজন্য নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডে ৩১টি স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র রয়েছে। এছাড়া খুলনার নয়টি উপজেলার তিন লাখ ৩৩ হাজার আটশ ৭৫ শিশুকে হাম-রুবেলার টিকা দেওয়া হবে। এই ক্যাম্পেইন আগামী ২৪ জানুয়ারি-২০২১ পর্যন্ত চলবে।

Related posts