মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১ | ১ আষাঢ় ১৪২৮

Select your Top Menu from wp menus

যুদ্ধ শুরু হলে তার কোন সীমানা থাকবে না : ইরান

এসবিনিউজ ডেস্ক: ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছেন, তার দেশের বিরুদ্ধে যদি কেউ আগ্রাসন শুরু করে তাহলে তার জবাব এতটা ভয়াবহ হবে যে, সেই যুদ্ধ কোনো সুনির্দিষ্ট ভূখণ্ডের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না।

তিনি আরো বলেন ইরানের বিরুদ্ধে যে দেশই যুদ্ধ শুরু করুক না কেন তারা যুদ্ধ শেষ করতে পারবে না; এমন ধরনের যুদ্ধ পুরো মধ্যপ্রাচ্যে ছড়িয়ে পড়বে, এমনকি মধ্যপ্রাচের বাইরে সে যুদ্ধ ছড়িয়ে যাবে। মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল সিবিএস নিউজের ‘ফেইস দ্যা নেশন’ অনুষ্ঠানকে দেয়া সাক্ষাৎকারে গতকাল (শনিবার) জাওয়াদ জারিফ এসব কথা বলেছেন। তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করলে সে যুদ্ধ কোনভাবেই ইরানের ভেতর সীমাবদ্ধ থাকবে না।

জারিফবলেন, ইরান কারো বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে চায় না তবে কেউ যদি ইরানের বিরুদ্ধে যুদ্ধ শুরু করে তাহলে তারা সে যুদ্ধ শেষ করতে পারবে না। নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে ইরানি মিশনে তারে সাক্ষাকার রেকর্ড করা হয় এবং আজ সিবিএস টেলিভিশনে সম্প্রচারের কথা রয়েছে।

সৌদি আরবের আরামকো তেল স্থাপনায় ইয়েমেনি সেনাদের হামলার পর যখন ইরান এবং সৌদি আরব ও আমেরিকার মধ্যে প্রচণ্ড সামরিক উত্তেজনা চলছে তখন জাওয়াদ জারিফ এসব কথা বললেন।

ওই হামলার জন্য আমেরিকা ইরানকে দায়ী করছে। সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল-জুবায়েরও সম্প্রতি বলেছেন, হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্র ইরানের তৈরি। তবে এসব অভিযোগ সরাসরি নাকচ করে দিয়েছে ইরান।

সিবিএস টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাকারে জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, আরামকো তেল স্থাপনায় হামলার পর সৌদি আরবে আমেরিকা নতুন করে যে সেনা মোতায়েন করতে যাচ্ছে তা মধ্যপ্রাচ্যে চলমান উত্তেজনা নিরসনে কোনো ভূমিকা রাখবে না। তিনি বলেন, আমেরিকা এবং তার মিত্রদের উচিত ইয়েমেন যুদ্ধের সমাধান করা, তাহলে মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

সিবিএস টেলিভিশনের সাংবাদিক মার্গারেট ব্রেনান জারিফের কাছে জানতে চান- আমেরিকা যে আলোচনার প্রস্তাব দিয়েছে সে ব্যাপারে ইরানের দৃষ্টিভঙ্গি কি? জবাবে জাওয়াদ জারিফ বলেন, আমেরিকা জারিফের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে এবং জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে তাকে মার্কিন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে নিষেধাজ্ঞা ছাড় নিতে হয়েছে। ইরানের সঙ্গে সংলাপে ব্যাপারে আমেরিকা যে দাবি করে আসছে তাকে তিনি সরাসরি নাকচ করে দেন। এ সময় তিনি ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকার অবৈধ নিষেধাজ্ঞার কথা উল্লেখ করে বলেন, এসব নিষেধাজ্ঞার কারণে ইরানের সাধারণ জনগণ খাদ্য ও জরুরি ওষুধ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

Related posts