মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

মনে হচ্ছিল কাজটা বেশ কঠিন: মিথিলা

কালচারাল ডেস্ক: ‘প্রথমে মনে হচ্ছিল কাজটা বেশ কঠিন হবে। কারণ হাতে ধরা মোবাইল ক্যামেরায় যে যার নিজের অংশটুকু শুট করেছি। তবে সেই জড়তা কাটতে সময় লাগেনি। কাজটি করতে গিয়ে খুব উপভোগ করেছি। আশা করি, চলচ্চিত্রটি সবার ভালো লাগবে।’–নিজের অভিনীত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানিয়ে এসব কথা বলেন রাফিয়াথ রশীদ মিথিলা।

করোনার ঘরবন্দি দিনে একটি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন মিথিলা। এতে মিথিলার বিপরীতে অভিনয় করেছেন টলিউড অভিনেতা বিক্রম চ্যাটার্জি। আলোচিত এই চলচ্চিত্র কলকাতার টিভিওয়ালা মিডিয়া ও বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহ ভিজ্যুয়াল ফ্যাক্টরি যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে। ‘দূরে থাকা কাছের মানুষ’ নামে এই চলচ্চিত্র পরিচালনা করেছেন শাহরিয়ার পলক। গতকাল ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে এটি।

অন্যদিকে শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বিক্রম চ্যাটার্জি বলেন—‘চলচ্চিত্রটির গল্প ভীষণ সেনসিটিভ। বহুবছর পর দুজন মানুষ একে অপরের সঙ্গে কথা বলছে। একটা গভীর বন্ধুত্বের সুবাস ছড়িয়ে ছিল গোটা চিত্রনাট্য জুড়ে। আমি এবং আমার বন্ধু অভিনব মিলে শুটিং করেছি। ক্যামেরা, মেকআপ সব বিভাগের কাজ নিজেই সামলেছি। আমি কলকাতায় মিথিলা ঢাকায়। লকডাউনের সমস্ত নিয়মকানুন বজায় রেখে বাড়িতে বসেই হয়েছে শুট। নিঃসন্দেহে কঠিন একটা কাজ, তবে টিমের সবার সহযোগিতার কারণেই সম্ভব হয়েছে। আশা করি যে উদ্দেশ্যে চলচ্চিত্রটি বানানো, সেটি সফল হবে এবং এটি সবার ভালো লাগবে। আমরা খুব কঠিন সময় পার করছি অর্থনৈতিক, মানসিকভাবে। এই সমস্যার সময় নতুন অনেক জিনিস শিখছি। আশা করি, আগামী দিনে সেসব কাজে লাগবে।’

করোনার প্রকোপে দীর্ঘায়িত হচ্ছে লকডাউন। সবাই গৃহবন্দি। যানবাহন, কলকারখানা সবই বন্ধ। ভারত ও বাংলাদেশে বন্ধ রয়েছে চলচ্চিত্র শিল্পও। দুই বাংলায় অনেকেই কাজ হারিয়েছেন। তাদের জন্য তহবিল সংগ্রহ করতেই নির্মিত হয়েছে এই চলচ্চিত্র। পরিচালক শাহরিয়ার পলক বলেন—‘এই চলচ্চিত্রের সঙ্গে যুক্ত সকলেই পারিশ্রমিক ছাড়াই সংযুক্ত হয়েছে। এই শর্টফিল্ম থেকে সংগৃহীত পুরো তহবিল ঢাকা সিনে শ্রমিক এবং কলকাতা সিনেমা শ্রমিকদের কল্যাণ তহবিলে অনুদান দেওয়া হবে। এটাই আমাদের প্রতিশ্রুতি।’

Related posts