বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২০ | ৯ মাঘ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে ওরিয়েন্টশন কর্মশালা

স্টাফ রিপোর্টার: আগামী ১১ জানুয়ারি দেশব্যাপী ছয় মাস হতে পাঁচ বছর বয়সী সকল শিশুকে ভিটামিন এ খওয়ানো হবে। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) খুলনার স্কুল হেলথ ক্লিনিকের সম্মেলনকক্ষে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা সিভিল সার্জন দপ্তর এবং সিটি কর্পোরেশন যৌথভাবে এই কর্মশালার আয়োজন করে।  

খুলনার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ সাইদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার ম. জাভেদ ইকবাল, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মামুন রেজা, শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ শরাফত আলী প্রমুখ। কর্মশালায় সরকারি কর্মকর্তা, ইলেক্ট্রনিক ও  প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশগ্রহণ করেন।     

ডেপুটি সিভিল সার্জন বলেন, সকাল আটটা থেকে একটানা বিকেল চারটা পর্যন্ত ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে এবং এ সাথে প্রচার করা হবে স্বাস্থ্যবার্তাসমূহ। এছাড়া স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রের পাশাপাশি রেল স্টেশন, বাসটার্মিনাল, ফেরিঘাট, লঞ্চঘাটসহ বিভিন্ন স্থানে অস্থায়ী টিকাদান কেন্দ্রে শিশুদের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। ক্যাপসুল খালি পেটে খাওয়ানো যাবে না। এতে সাধারণত কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। ঐ দিন সারাদেশে জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন এর মাধ্যমে ৬-১১ মাস বয়সী সকল শিশুকে

১টি করে নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী সকল শিশুকে ১টি করে লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। জনজীবনে আতঙ্ক সৃষ্টি করে এমন কোন সংবাদ পরিবেশন না করা এবং জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সফল ও জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার জন্য সাংবাদিকদের সহায়তা কামনা করেন সভাপতি।

এবছর খুলনা জেলায় নয়টি উপজেলা, একটি সিটি কর্পোরেশন এবং দুইটি পৌরসভায় ৬ হতে ১১ মাস বয়সী ৩১ হাজার ছয়শ ৪৩ শিশুকে এবং ১২ হতে ৫৯ মাস বয়সী দুই লাখ ৩৯ হাজার ছয়শ ৯৮ শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

ওরিয়েন্টেশনে দেওয়া তথ্যমতে সিটি কর্পোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে কেন্দ্রের সংখ্যা সাতশত ১০টি, মোবাইল টিম ৮০টি, এনজিও পরিচালিত কেন্দ্র ৫০টি, ভলেন্টিয়ার (ওয়ার্ড ভিত্তিক) এক হাজার একশত ৬০জন, মোট ভলেন্টিয়ার এক হাজার চারশত ২০ জন এবং সুপারভাইজার ৬২ জন। খুলনা জেলার নয়টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভায় মোট ইউনিয়নের সংখ্যা ৬৮টি, ওয়ার্ড সংখ্যা দুইশত চারটি, মোট টিকাদান কেন্দ্র এক হাজার ছয়শত ৪১টি, ভলেন্টিয়ার তিন হাজার দুইশত ৮২জন এবং মেডিকেল টিমের সংখ্যা একশত ১৬টি।

Related posts