রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১ | ৫ বৈশাখ ১৪২৮

Select your Top Menu from wp menus

ভাস্কর্যবিরোধী অপতৎপরতা রুখতে হবে: মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ¦ তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভেঙ্গে সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠি বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের উপর আঘাত হেনেছে। যারা বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙ্গার মতো ধৃষ্টতা দেখিয়েছে, তারা বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে বিশ^াস করেনা। তাদের যেকোন ধরনের অপতৎপরতা সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলা করে দাঁত ভাঙ্গা জবাব দিতে হবে।
তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখনই এগিয়ে যাচ্ছে, ঠিক সেই মুহুর্তে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে একটি সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠি ভাস্কর্য নিয়ে উস্কানি দিচ্ছে। এদেরকে চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায় এই সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠি দেশের বর্তমান শান্তিময় পরিবেশ বিনষ্টের ষড়যন্ত্র অব্যাহত রাখবে।
শনিবার (১২ ডিসেম্বর) নগরীর পিকচার প্যালেস মোড়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে ও হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়ন (কেইউজে) আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।
ইউনিয়নের সভাপতি মো. মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো. সাঈয়েদুজ্জামান সম্রাটের পরিচালনায় মানববন্ধনে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত অধিকারী, মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক সফিকুর রহমান পলাশ, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা শেখ মো. আবু হানিফ।
এসময় আরও বক্তৃতা করেন কেইউজে’র সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিন্টু, এস এম জাহিদ হোসেন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সাহেব আলী, মোজাম্মেল হক হাওলাদার, মো. শাহ আলম, মল্লিক সুধাংশু, অমিয় কান্তি পাল, মো. হুমায়ুন কবীর, নেয়ামুল হোসেন কচি, জয়নাল ফরাজী, নূর হাসান জনি, আল মাহমুদ প্রিন্স, কৌশিক দে বাপী, প্রবীর বিশ^াস। সংহতি জানিয়ে বক্তৃতা করেন সরকারি মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ প্রধান শিক্ষক মাহমুদ আলম, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শাহিন জামান পন, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি পারভেজ হাওলাদার, নগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল।
মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন আ’লীগ নেতা শ্যামল সিংহ রায়, অসিত বরণ বিশ^াস, বিএফইউজের নির্বাহী সদস্য এস এম ফরিদ রানা, সাংবাদিক নেতা আসাদুজ্জামান রিয়াজ, দেবব্রত রায়, রাশিদুল আহসান বাবলু, জাহিদুল ইসলাম, আলমগীর হান্নান, সোহেল মাহমুদ, সুনীল দাস, দেবনাথ রণজিৎ কুমার রনো, তিতাস চক্রবর্তী, সাঈদা আক্তার রিনি, মিলন হোসেন, শেখ কামরুল আহসান, রীতা রানী দাস, আব্দুস সাত্তার, শেখ লিয়াকত হোসেন, আমজাদ আলী লিটন, নাজমুল হাসান, হাসানুর রহমান তানজির, শাহজালাল মোল্লা মিলন, আমিনুর রহমান নিউটন, এস এম বাহাউদ্দিন, হেলাল মোল্লা, শেখ জাহিদুল ইসলাম, শেখ আব্দুল হামিদ, তুফান গাইন, আঃ রাজ্জাক, আবুল বাশার, সোহেল রানা, শেখ শান্ত ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা শেখ রাসেল বুলু, জহির আব্বাস, মাহমুদুর রহমান রাজেশ-সহ কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ। মানববন্ধনে বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ সংহতি প্রকাশ করেন।

Related posts