বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ❙ ১৯ মাঘ ১৪২৯

বিশ্ব ইজতেমা শুরু

এসবিনিউজ ডেস্ক: টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে লাখ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লির অংশগ্রহণে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমা।

শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) ফজরের নামাজের পর পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হকের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় এবারের ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা। তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেছেন বাংলাদেশের মাওলানা নূরুর রহমান।

বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে টঙ্গীর ইজতেমাস্থল ও এর আশপাশ এলাকায় মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের পদচারণনায় শিল্পশহর টঙ্গীর এসব এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে। এবারের ইজতেমায় বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশের পাশাপাশি দেশের ৬৪ জেলার মুসল্লিরা একযোগে অংশ নিচ্ছেন। বিভিন্নস্থান থেকে মুসল্লিদের ইজতেমাস্থলে আসা এখনো অব্যাহত রয়েছে।

ইজতেমা শুরুর দিনশুক্রবার হওয়ায় ইজতেমা মাঠে জুমার নামাজ অনুষ্ঠিত হবে। জুমার নামাজে অংশ নিতে ঢাকা-গাজীপুরসহ আশেপাশের এলাকার লাখ লাখ মুসুল্লি ইজতেমাস্থলে আসছেন।

জানা গেছে, চার দিনব্যাপি বিশ্ব ইজতেমার প্রথম দুই দিন (১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি) ইজতেমার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন মাওলানা জুবায়েরের অনুসারীরা। ১৬ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে তাদের আখেরি মোনাজাত। পরে দুই দিন (১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি) ইজতেমার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন সা’দপন্থী মাওলানা ওয়াসিফুল ইসলামের অনুসারীরা। ১৮ ফেব্রুয়ারি তাদের আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের ৫৪তম বিশ্ব ইজতেমা কার্যক্রম।

চার মুসল্লির মৃত্য : শুক্রবার সকাল পর্যন্ত বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দেয়া চার মুসল্লির মুত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে ফেনী জেলা সদর এলাকার শফিকুর রহমান (৫৮), কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার ঝাউদিয়া গ্রামের মো. সিরাজুল ইসলাম (৬৫), বৃহস্পতিবার নাটোরের মো. মোহাম্মদ হোসেন (৫৫) মৃত্যুবরণ করেন। এর আগে বুধবার মারা যান বি-বাড়ীয়ার সরাইল থানার দোবাজাইল গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক (৪২)।

Related posts