মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ | ২৭ কার্তিক ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

‘বিজয় ও স্বাধীনতা দিবসে বোনাস পাবেন মুক্তিযোদ্ধারা’

এসবিনিউজ ডেস্ক: পাঠ্যবই সংশোধনের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের গৌরবের কথা এবং রাজাকারদের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তিনি বলেন, বিজয় দিবস ও স্বাধীনতা দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের বোনাস দেওয়া হবে। ১৫ হাজার অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাকে ঘর বানিয়ে দেওয়া হবে।

শনিবার দুপুরে সোনারগাঁয়ের সাহাপুর এলাকায় সোনারগাঁ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেপ ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। মন্ত্রী আরও বলেন, বধ্যভূমি, মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থান এবং মুক্তিযোদ্ধাদের কবর সংরক্ষণ করা হবে। এসব স্থান একই নকশায় সংরক্ষণ করা হবে। দখল হয়ে যাওয়া মুক্তিযুদ্ধের স্থান ও বধ্যভূমিগুলো উদ্ধার করা হবে। এ ছাড়া মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে পরিচয়পত্র বিতরণ করা হবে। মুক্তিযোদ্ধারা মারা গেলে দাফন খরচ হিসেবে পাঁচ হাজার টাকা দেওয়া হতো। এর পরিমাণ বাড়িয়ে ১০ হাজার টাকা করা হবে। প্রয়োজনে পরিবহন খরচ দেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. জসীমউদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন, নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার মো. হারুন অর রশিদ, নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল্লাহ আল কায়সার, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক জেলা কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, সোনারগাঁ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন, সোনারগাঁ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অঞ্জন কুমার সরকার, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণ প্রকল্পের পরিচালক মো. আব্দুল হাকিম, নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী অধ্যক্ষ শিরিন বেগম, সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অ্যাডভোকেট সামসুল ইসলাম ভূঁইয়া, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান কালাম, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা সম্পাদক ড. সেলিনা আক্তার, সোনারগাঁ উপজেলার সাবেক ডেপুটি কমান্ডার ওসমান গণি প্রমুখ।

 

Related posts