শুক্রবার, ৫ মার্চ ২০২১ | ২০ ফাল্গুন ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

বিচারপতিকে আর ‌‘মাই লর্ড’ বা ‘লর্ডশিপ’ বলা নয়

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: ‘মাই লর্ড’ বা ‘লর্ডশিপ’ নয়। এখন থেকে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতিকে জেলা আদালতের বিচারকরা ‘স্যার’ বলেই সম্বোধন করতে পারবেন।
বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির পক্ষে এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন রেজিস্টার জেনারেল রাই চট্টোপাধ্যায়।
এই বিজ্ঞপ্তি রাজ্যের সব জেলা আদালত, নিম্ন আদালত এবং আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে পাঠানো হয়েছে।
এতে বলা হয়েছে, ‘এখন থেকে রেজিস্টারসহ জেলা বিচার বিভাগের কর্মকর্তারা মাননীয় প্রধান বিচারপতিকে মাই লর্ড কিংবা লর্ডশিপ এর পরিবর্তে স্যর বলে সম্বোধন করবেন। বিচারবিভাগীয় কর্মকর্তাদেরও এমনটাই করতে হবে।’
অবশ্য এই সম্বোধন নিয়ে বিতর্ক আদালত অঙ্গনে দীর্ঘদিন ধরেই চলে আসছে। এক জনস্বার্থ মামলায় ২০১৪ সালে সুপ্রিম কোর্টের তৎকালীন বিচারপতি এইচএল দাত্তু ও শরদ অরবিন্দ বোবড়ের বেঞ্চ বলেছিল, বিচারপতিদের লর্ড, লর্ডশিপ বা ইয়োর অনার বলে সম্বোধন বাধ্যতামূলক নয়। বিচারপতিকে সম্মান জানিয়ে স্যার বলে সম্বোধন করা যেতেই পারে। এরপরও পুরোনো অভ্যাস বিশেষ বদলায়নি। গত বছর রাজস্থান হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি এস রবীন্দ্র ভাটের উদ্যোগে ‘ফুল কোর্ট’ বৈঠকে বিচারপতিদের স্যার সম্বোধনের জানানোরই সিদ্ধান্ত ঘোষিত হয়।
তার আগেই অবশ্য দিল্লি হাইকোর্টে বিচারপতি হয়ে এস মুরলিধর তাকে স্যার সম্বোধনের রীতি চালু করে দিয়েছিলেন সেই ২০০৬ সালে। কয়েক মাস আগে দিল্লি থেকে পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে বদলি হয়েও একই নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। ২০০৬ সালে বার কাউন্সিল অব ইন্ডিয়াও ঔপনিবেশিকতার চিহ্ন ‘মাই লর্ড’ সম্বোধন বাতিলের প্রস্তাব দিয়েছিল।

Related posts