মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ❙ ২৪ মাঘ ১৪২৯

প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে উপবৃত্তির ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ: গণশিক্ষা সচিব

স্টাফ রিপোর্টার: মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে উপবৃত্তি প্রদান কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে প্রশিক্ষণ কর্মশালা শনিবার (২৩ফেব্রুয়ারি) খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বাস্তবায়নধীন প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প (৩য় পর্যায়)এই কর্মশালার আয়োজন করে। দিনব্যাপী এই কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে সচিব মোঃ আকরাম-আল-হোসেন।
উদ্বোধনী বক্তৃতায় প্রধান অতিথি বলেন, মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে উপবৃত্তি প্রদান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ। কোন ধরণের বিদেশি অনুদান ছাড়াই প্রাথমিকের শতভাগ শিক্ষার্থীকে এই উপবৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে এই উপবৃত্তি খাতে বরাদ্দ পনের শত পঞ্চাশ কোটি টাকা। এক কোটি মাকে রূপালী ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং শিওর ক্যাশের আওতায় এনে মোট এক কোটি ৪০ লক্ষ শিক্ষার্থীকে এ বছর এই উপবৃত্তি প্রদান করা হবে।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব আরো বলেন, মোবাইলের মাধ্যমে এই উপবৃত্তি প্রদানের ফলে এই খাতে দুর্নীতি শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। ছাত্রছাত্রী ভর্তি হার যেমন বৃদ্ধি পেয়েছে তেমনি হ্রাস পেয়েছে ঝরে পড়ার হার। একইসাথে এই ডিজিটাল প্রযুক্তিতে মা’দেরকে সম্পৃক্ত করার কারণে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে। দারিদ্রের হার কমেছে। প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে এই প্রকল্প।
প্রকল্প পরিচালক মো: ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড. এ এফ এম মনজুর কাদির, শিওর ক্যাশের প্রধান নির্বাহী ড. শাহাদত খান, স্থানীয় সরকার বিভাগ খুলনার উপপরিচালক ইসরাত জাহান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আইসিটি গোলাম মাইনউদ্দীন হাসান প্রমুখ।
কর্মশালায় খুলনা, যশোর, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা ও নড়াইল জেলার সকল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, বিভিন্ন উপজেলার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, সহকারী উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, প্রধান শিক্ষক, ডাটা এন্ট্রি অপারেটর এবং অভিভাবকরা অংশগ্রহণ করেন।

Related posts