শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

দেশকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান প্রধানমন্ত্রী: মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার: ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের কর্মদক্ষতা বাড়াতে ও দলীয় কার্যক্রমে পুরোমাত্রায় সক্রিয় করতে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির উদ্যোগে বিভাগীয় কর্মশালার খুলনা পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (কুয়েট) মিলনায়তনে ‘কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম’ শীর্ষক বিভাগীয় কর্মশালা আয়োজন করে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনের যখন প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের কথা নির্বাচনী ইশতেহারে বলেছিলেন তখন অনেকেই অনেক কথা বলেছিল। অনেক ঠাট্টা করেছিল। কিন্তু বাংলাদেশ এখন সত্যিই ডিজিটালে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ এখন এমন কোনো সেক্টর নাই যেখানে ডিজিটাল হয়নি।

‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কারণে এখন অনেক অঘটন ঘটছে দেশ। এই অঘটনের মূলে রয়েছে গুজব। গুজবের বিরুদ্ধে আমাদের নেতাকর্মীদের শক্ত অবস্থান নিতে হবে। যেন বাংলাদেশ ফেসবুকের কারণে কোনো অঘটন না ঘটে। ফেসবুক ভালো অর্থে ব্যবহার করতে হবে। ফেসবুকে যদি কোনো অপপ্রচার চালনো হয় তাহলে খুব ঠাণ্ডা মাথায় এর জবাব দিতে হবে।’

বর্তমান সরকারের মিশন ভিশন বাস্তবায়নে ছাত্রলীগকে একসঙ্গে কাজ করার আহবান জানিয়ে মেয়র বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যেসব অসমাপ্ত কাজ রয়েছে তা বঙ্গবন্ধু কন্যা বাস্তবায়ন করছেন। প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে এক অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চান। তার জন্য ছাত্রলীগকে বেশি ভূমিকা রাখতে হবে। ছাত্রলীগকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

স্বাগত বক্তব্যে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সচিব এবং আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর বলেন, সচেতনতার অভাবে অনেক সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা কিছু ভুল করে থাকেন। সেই ভুলগুলোকে ইস্যু করে অপপ্রচার এবং সামাজিক শৃঙ্খলা নষ্ট করার চেষ্টা করে স্বাধীনতাবিরোধী ও জঙ্গিবাদের মূল পৃষ্ঠপোষক বিএনপি-জামায়াত। তাই এসব ব্যাপারে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে।

আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপকমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. হোসেন মনসুরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং উপ-কমিটির সদস্য সচিব প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কাজী সাজ্জাদ হোসেন।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপকমিটির সদস্য প্রকৌশলী রনক আহসানের সঞ্চালনায় কর্মশালায় প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন, কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য এবং আইইবি কম্পিউটার প্রকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী মো. মাহফুজুল ইসলাম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সুফি ফারুক ইবনে আবুবকর এবং সিআরআই কো-অর্ডিনেটর এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য প্রকৌশলী তন্ময় আহমেদ।

এছাড়া অনুষ্ঠানে খুলনা বিভাগের সব ইউনিট আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা কর্মশালায় অংশ নেন।

Related posts