সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০ | ২৯ আষাঢ় ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

দাকোপে জেলা প্রশাসনের ত্রাণ বিরতণ

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনার উপকূলীয় উপজেলা দাকোপে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে খুলনা জেলা প্রশাসন ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করে। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন সংরক্ষিত মহিলা সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকারকে সাথে নিয়ে বুধবার (৩ জুন) সারাদিন দাকোপ উপজেলায় ঝুলন্ত গ্রাম নামে পরিচিত কালাবগি ও নলিয়ান এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।

ত্রাণ সামগ্রীর মধ্যে ছিলো ২৫০ পরিবারকে ১০ কেজি চাল, ডাল ও আলু। ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ৩০টি পরিবারকে ঘর নির্মাণের জন্য দুই বান্ডেল ঢেউ টিন এবং নগদ ছয় হাজার টাকা করে প্রদান করা হয়। স্কুল ও মাদ্রাসার ৩০জন শিক্ষার্থীকে নগদ দুই হাজার টাকা করে বিরতণ করা হয়। এছাড়া স্বেচ্ছাশ্রম নিয়ে যারা বেড়িবাঁধ মেরামত করছে তাদেরকেও ত্রাণ বিতরণ করা হয়।

এসময় সংসদ সদস্য গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার বলেন, দাকোপ-বটিয়াঘাটা এক সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্বাচনী এলাকা ছিলো। তাই তিনি এ অঞ্চলের টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ এবং মানুষের জীবনমান উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর নিকট অনুরোধ জানান।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, এ অঞ্চলে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের প্রকল্প একনেক সভায় অনুমোদনের প্রক্রিয়ায় আছে এবং শীঘ্রই তা পাশ হবে। প্রাথমিক অবস্থায় বেড়িবাঁধগুলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনী, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও  স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় সংস্কার করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবার যেন সরকারি সহায়তা পায় সে ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের নির্দেশনায় খুলনা জেলা প্রশাসন কাজ করে যাচ্ছে।

এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জিয়াউর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আবদুল ওয়াদুদ, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পলাশ কুমার ব্যানার্জি ও স্থানীয় জনপ্রতিনিরা উপস্থিত ছিলেন।

Related posts