সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

ডিম আগে নাকি মুরগি-বিতর্কের সমাধান মিলেছে

এসবিনিউজ ডেস্ক: অবশেষে পাওয়া গেল বহুল প্রচলতি দীর্ঘদিনের একটি বিতর্কের সমাধান; আর সেটি হল- ‘ডিম আগে নাকি মুরগি’। অবশ্য এ নিয়ে জল্পনা-কল্পনা চলছিল অনেক আগে থেকেই। তবে ইতোপূর্বে এর প্রকৃত সমাধান হয়তো কেউই দিতে পারেনি। কিন্তু এর পরও থেমে থাকেননি বিজ্ঞানী-গবেষকরা। অবশেষে ডিম না মুরগি আগে তার একটি সমাধান দিলেন গবেষকরা। আমেরিকায় একটি গবেষণায় জানা গেছে, মুরগি নাকি ডিম- পৃথিবীতে কে এসেছে আগে। এনপিআর নামে এক মার্কিন ওয়েবসাইট জানিয়েছে, বহু পুরনো সেই ধাঁধাটির উত্তর। আর সেটি অনেকদিন ধরে চলা গবেষণারই ফসল। খবরে প্রকাশ, মার্কিন সাংবাদিক রবার্ট ক্রুলউইচ এই নিয়ে রীতিমতো গবেষণা করেছেন কয়েক বছর ধরে।
ওই ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, কয়েকশ বছর আগে পৃথিবীতে মুরগির মত দেখতে বড় পাখি ছিল। সেই পাখির সাতে মুরগির জিনগত মিল ছিল। কিন্তু সেটি আসলে মুরগি ছিল না। বিজ্ঞানীদের বক্তব্য, সেটি ছিল এক ধরনের ‘প্রোটো-চিকেন’। আর সেই পাখি একটি ডিম পেড়েছিল। ওই ডিমে মুরগির পুরুষসঙ্গী কিছু নতুন বৈশিষ্ট্য যোগ করে। তারপর আরও কিছু পরিবর্তন ঘটে সেই ডিমে। সেই পরিবর্তন তখনকার পুরুষ কিংবা নারী মুরগির জিন থেকে বেশ কিছুটা আলাদা।
বিজ্ঞানীদের দাবি, ওই ডিম ফুটে যে বাচ্চা বেরিয়েছিল সেই নতুন প্রজাতির পাখিই আজকের মুরগি আদি রূপ। এরপর কয়েক হাজার বছর ধরে পৃথিবীতে বিবর্তন আর পরিবর্তিত পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে মুরগির শরীরে বহু পরিবর্তন হয়েছে। অবশ্য সেই মুরগির সাথে এখনকার মুরগির হয়তো পার্থক্য অনেক। তবে ওই ডিমের মধ্যে মিউটেশন ঘটে যাওয়ার ফলেই সেই আদি মুরগির জন্ম হয়েছিল। তার মানে সেই ডিমের আগে কোনও মুরগি ছিল না। অর্থাৎ ডিম-ই আগে এবং মুরগি এসেছে পরে।

Related posts