বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই ২০২০ | ১ শ্রাবণ ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

গ্রামীণফোনে নতুন বিধিনিষেধ বিটিআরসি’র

এসবিনিউজ ডেস্ক: এমএনপি সেবার মেয়াদ কমানোসহ সর্বনিম্ন কলরেটের বাইরে রেখে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোনের ক্ষেত্রে নতুন বিধিনিষেধ আরোপ করেছে বিটিআরসি।

খুচরা মোবাইল সেবা সংশ্লিষ্ট বাজারে তাৎপর্যপূর্ণ বাজার ক্ষমতা সম্পন্ন মোবাইল অপারেটরসূহের জন্য নির্দেশনা দিয়ে গ্রামীণফোনসহ রোববার (২১ জুন) সব মোবাইল ফোন অপারেটরকে চিঠি পাঠিয়েছে কমিশন।

নির্দেশনায় বলা হয়, গ্রামীণফোনের ক্ষেত্রে এমএনপি (এক অপারেটরে অন্য অপারেটরের সেবা) লকিং পিরিয়ড ৯০ দিনের পরিবর্তে ৬০ দিন হবে, যা ১ জুলাই থেকে প্রযোজ্য হবে।

চিঠিতে বলা হয়, এসএমপি (সিগনিফিকেন্ট মার্কেট পাওয়ার) অপারেটর হিসেবে গ্রামীণফোন বিটিআরসির অনুমোদন ব্যতীত কোনো প্রকার সার্ভিস/প্যাকেজ/অফার প্রদান করতে পারবে না। এমনকি সার্ভিস/প্যাকেজ/অফারের পরিবর্তন/পরিবর্ধন/পরিমার্জনের ক্ষেত্রে বিটিআরসির অনুমোদন নিতে হবে। গ্রামীণফোনের বর্তমানে প্রচলিত সকল প্রকার সার্ভিস/প্যাকেজ/অফার চালু রাখার ক্ষেত্রে পুনরায় কমিশনের অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে। নতুন সার্ভিস/প্যাকেজ/অফারের ক্ষেত্রে বিষয়টি আগামী ১ জুলাই থেকে প্রযোজ্য হবে। পুরাতন বা চলমান সকল সার্ভিস/প্যাকেজ/অফারসমূহ ৩১ আগস্টের মধ্যে কমিশন কর্তৃক পুনরায় অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে।

এতে আরও বলা হয়েছে, তাৎপর্যপূর্ণ বাজার ক্ষমতাসম্পন্ন পারিচালনাকারী হিসেবে গ্রামীণফোনের ভয়েস ট্যারিফ সর্বনিম্ন ৫০ পয়সা আপাতত দেয়া হলো না। কোভিড-১৯ এর কারণে সৃষ্ট চলমান সংকট পরিস্থিতে কমিশন এ সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে। তবে পরবর্তীতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এ বিষয়ে কমিশন হতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

বিটিআরসি চিঠিতে জানায়, গ্রামীণফোন যখন টার্মিনিটিং অপারেটর হিসেবে কার্যক্রম পরিচালনা করবে তখন অরিজেনিটেং অপারেটরসমূহ (এসইমপি নয়) হতে ১০ পয়সা মিনিটের পরিবর্তে ৫ পয়সা পাবে/গ্রহণ করবে তা আরও পুঙ্খানুপুঙ্খরূপে যাচাই-বাছাই করে কমিশন কর্তৃক অনতিবিলম্বে জারি করা হবে।

Related posts