বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২ ❙ ৩ ভাদ্র ১৪২৯

‘খুলনায় রাজনৈতিক দলের কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণ আশানরূপ নয়’

স্টাফ রিপোর্টার: রূপান্তর-এর আয়োজিত নীতিমালা বাস্তবায়নে অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় রাজনৈতিক দলের কমিটিগুলিতে ২০২২ সালের মধ্যে ৩৩% নারী অর্ন্তভূক্ত করা এবং রাজনৈতিক দলের সম্পাদকমন্ডলী বিশেষ করে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুগ্ম সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক পদগুলোর মধ্যে যে কোন একটি গুরুত্বপূর্ণ পদে নারী অর্ন্তভুক্তিকরণের বিষয়টি ওপর জোর দেওয়া হয়। বক্তারা বলেন, দলের সংবিধানে নারী অন্তর্ভূক্তির বিষয়টি থাকলেও বাস্তবে সেটা পালন করা হচ্ছে না। সকলে আশা প্রকাশ করেন যে আসন্ন ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা পর্যায়ের রাজনৈতিক দলের সম্মেলনে নারীদের সম্পৃক্ত করার উদ্যোগ নেওয়া এবং ২০২২ সালের মধ্যে খুলনা জেলার রাজনৈতিক দলের কমিটিতে ৩৩% নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত হবে।
সোমবার (২০ ডিসেম্বর) খুলনা প্রেসক্লাব হুমায়ুন কবির বালু মিলনায়তনে শিক্ষাবিদ অধ্যাপক আনোয়ারুল কাদিরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ফুলতলা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, সেন্ট্রাল নারী উন্নয়ন ফোরাম-এর মহাসচিব ও খুলনা জেলা নারী উন্নয়ন ফোরাম-এর সভাপতি ফারজানা ফেরদৌস নিশা ও অপরাজিতা প্রকল্পের ডেপুটি প্রোগ্রাম ডাইরেক্টর ফৌজিয়া খন্দকার ইভা। রাজনৈতিক দলের কমিটিতে নারীর অংশগ্রহণের পরিস্থিতি বিষয়ক ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ডুমুরিয়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শারমীনা পারভীন (রুমা)। প্রকল্প উপস্থাপন করেন অপরাজিতা প্রকল্পের প্রোগ্রাম সমন্বয়কারী সুবল ঘোষ। সভায় বক্তৃতা করেন খুলনা প্রেসক্লাব সভাপতি এস এম জাহিদ হোসেন, জাতীয় পার্টি খুলনা জেলা সভাপতি শফিকুল ইসলাম মধু, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান টুকু, বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টি খুলনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার উদ্দিন দিলু প্রমুখ।
আলোচনা সভায় অংশগ্রহণ করেন শামীমা সুলতানা শিলু, কামরুল ইসলাম, মাধুরী সরকার, স. ম. জাহঙ্গীর হোসেন, এ্যাড. লুৎফর রহমান, মিরাজ শেখ, আকলিমা খাতুন তুলি, বুলু রানী গাঙ্গুলী, দিপ্তি রানী মল্লিক, নুরুল ইসলাম রাজা, পলি আক্তার প্রমুখ।
অভিজ্ঞতা বিনিময় সভায় অংশগ্রহণকারীরা স্থানীয় পর্যায়ে রাজনৈতিক দলে নারীর অংশগ্রহণে যে বাধা বা সমস্যা চিহ্নিত করা হয় এবং সমাধানে সুপারিশ উপস্থাপন করা হয়। অংশগ্রহণকারীরা আশা করেন যে উপস্থিত রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ আলোচিত সুপারিশের প্রেক্ষিতে নারীর সম্পৃক্তির বিষয়টি সমাধানে উদ্যোগ গ্রহণ করবেন। সভায় ইউনিয়ন পর্যায়ে অপরাজিতা, নারীনেত্রী, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, নাগরিক নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন।
উল্লেখ্য, সুইস এজেন্সি ফর ডেভেলপমেন্ট এন্ড কো-আপারেশন-এর আর্থিক সহযোগিতায় ও হেলভেটাস ইন্টার কো-আপারেশন ও রূপান্তর যৌথভাবে অপরাজিতা প্রকল্প খুলনা ও বাগেরহাট জেলার ৮৪টি ইউনিয়নে বাস্তবায়ন করছে।

Related posts