শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

খুবির বিজিই ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু একাডেমিক ভবনের সাংবাদিক লিয়াকত আলী মিলনায়তনে সোমবার বায়োটেকনোলজি ও জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

ডিসিপ্লিন প্রধান প্রফেসর ড. আয়েশা আশরাফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ।

প্রধান অতিথি এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিদায় আসলে প্রকৃত অর্থে বিদায় নয়। আমরা যদি প্রকৃতির দিকে তাকাই তাহলে দেখতে পাবো প্রকৃতি প্রতিটি মুহূর্তে রূপ বদলায়। মানুষ অবস্থান পরিবর্তন করে। তাই বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাষায় ‘তোমায় নতুন করে পাবো বলে, হারাই ক্ষণে ক্ষণে, ও মোর ভালোবাসার ধন।’ তিনি বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন জীবনের চাওয়াটা যেন সর্বগ্রাসী না হয়। সর্বগ্রাসী হলে সেখানে পরিতৃপ্তি থাকে না।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয় অঙ্গনে র‌্যাগিং নামক অমানবিকতা, পাশবিক প্রবৃত্তি থেকে দূরে থাকতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ও ভাবমূর্তি যাতে কোনোভাবেই ক্ষুণœ না হয় সেদিকে শিক্ষার্থীদের সচেতন থাকার প্রতিও গুরুত্বারোপ করেন। পরে তিনি বিদায়ী ব্যাচের শিক্ষর্থীদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ করেন এবং ডিসিপ্লিনে বিভিন্ন অর্জনের জন্য কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জীববিজ্ঞান স্কুলের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ রায়হান আলী।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন প্রফেসর ড. খন্দকার মোয়াজ্জেম হোসেন, প্রফেসর ড. শেখ মোঃ এনায়েতুল বাবর, প্রফেসর ড. এস এম মাহবুবুর রহমান, প্রফেসর ড. শেখ জুলফিকর হোসেন। বিদায়ী ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী তারক চন্দ্র ঢালী এবং ১৭ ব্যাচের শিক্ষার্থী বনানী সরকার বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মানপত্র পাঠ করেন ১৬ ব্যাচের শিক্ষার্থী সুমাইয়া আফরিন। এ সময় সংশ্লিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Related posts