রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ❙ ১০ আশ্বিন ১৪২৯

খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে কৃষকের অবদান অনস্বীকার্য: বিভাগীয় কমিশনার

স্টাফ রিপোর্টার: ফসল উৎপাদনে বীজ, সার ও পানি ব্যবস্থাপনা শীর্ষক মতবিনিময় সভা বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) খুলনা জেলা শিল্পকলা একাডেমি অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মোঃ জিল্লুর রহমান চৌধুরী।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিভাগীয় কমিশনার বলেন, কৃষি বাংলাদেশের সবচেয়ে অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত খাত। বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের পিছনে কৃষকের অবদান অনস্বীকার্য। তাদের সমস্যা সমাধান করতে না পারলে কৃষি উৎপাদনের বর্তমান ধারাবাহিকতা ধরে রাখা সম্ভব হবে না। বিভাগীয় কমিশনার বলেন, কৃষি সেক্টরকে বাঁচাতে স্থানীয় পর্যায়ে সার, বীজ ও সেচ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। এক্ষেত্রে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, কৃষি কর্মকর্তা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নিতে হবে। তিনি দেশপ্রেমের আদর্শকে ধারণ করে কৃষিখাতের সম্ভাবনা এবং সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানে সমন্বিত পদক্ষেপ নিতে বলে।
খুলনার জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামান তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের পরিচালক মোঃ ফজলুল হক। অনুষ্ঠানে স্বাগত জানান কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ হাফিজুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বিএডিসি’র যুগ্ম পরিচালক (সার) মোঃ লিয়াকত হোসেন, আঞ্চলিক বীজ প্রত্যয়ন কর্মকর্তা মোঃ নুরুল ইসলাম ও কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের উপপরিচালক সিফাত মেহনাজ।
মতবিনিময় সভায় বীজ, সার ও পানি ব্যবস্থাপনায় উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরেন। তাঁরা স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত ফসল পরিবহনে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, সেচ সুবিধা পেতে স্লুইজগেট সচল রাখা এবং এগুলো পরিচালনায় কর্তৃপক্ষের তদারকি, টেকসই বাঁধ নির্মাণ ও খাল খননে নজরদারিসহ খাল উন্মুক্ত রাখতে প্রশাসনের দৃষ্টি আর্কষণ করেন।
অনুষ্ঠানে খুলনা ও সাতক্ষীরা জেলার সকল পর্যায়ে কৃষি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, সার ও বীজ ডিলার, স্থানীয় কৃষক এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

Related posts