শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০ | ২৬ আষাঢ় ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

কয়রার আলোচিত সেই বাঁধ মেরামত করলেন স্থানীয়রা

কয়রা (খুলনা) প্রতিনিধি: খুলনার কয়রা উপজেলার সেই আলোচিত হরিণখোলা বাঁধটি স্বেচ্ছাশ্রমে মেরামত করেছেন স্থানীয় গ্রামবাসী। শনিবার দুপুরের জোয়ারের আগেই বাঁধটি দিয়ে নদীর পানি প্রবেশ বন্ধ করতে সক্ষম হন তারা। এতে কয়রা উপজেলা সদরসহ আশ পাশের ১৭টি গ্রামে জোয়ারের পানি ওঠা বন্ধ হয়েছে।

ওই বাঁধটি মেরামতে ঈ দের দিনে সকালেও সেখানে কাজ করেন স্থানীয় প্রায় সাত হাজার মানুষ। পরে জোয়ারের সময় সেখানেই তারা ঈদের নামাজ আদায় করেন। সেই থেকে এ বাঁধটি নিয়ে সারাদেশে আলোচনা শুরু হয়।

গত ২০ মে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে হরিণখোলাসহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ১৪টি পয়েন্টে ভেঙে যায়। এতে ৪২ গ্রাম প্লাবিত হয়। এলাকাবাসীর উদ্যোগে এ পর্যন্ত ১১টি স্থানে মেরামত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কয়রা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে বাঁধ ভাঙার পর থেকে স্থানীয়দের নিরলস পরিশ্রমে বেশিরভাগ বাঁধ মোরামত সম্পন্ন করা গেছে। তবে এতে সাময়িক পানি প্রবেশ ঠেকানো সম্ভব হয়েছে। এবার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। তা নাহলে বড় জোয়ারে ওই বাঁধ আবারো ভেঙে যাওয়ার আশংকা রয়েছে। তিনি বাঁধ মেরামতে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান খান বলেন, ওই বাঁধটি সংস্কারের দায়িত্ব নিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। আমরা তাদের সাথে আলোচনা করে যাচ্ছি। আশা করি দ্রুত বাঁধটি পুরোপুরিভাবে মেরামত সম্পন্ন হবে। এ ছাড়া অন্যন্য বাঁধগুলিও মেরামতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

Related posts