শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৯ আশ্বিন ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

এবার শিশু মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি আবিষ্কার

এসবিনিউজ ডেস্ক: এবার শিশু মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সি আবিষ্কার করেছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা; পৃথিবী থেকে ১২০০ কোটি আলোকবর্ষ দূরে শিশু মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির সোনালী আলোয় ঝলমল বলয় শনাক্ত করেছেন তারা। বুধবার তারা এ ঘোষণা দিয়ে বলেন, নবজাতক নক্ষত্রমালার এই গ্যালাক্সি সিস্টেম ‘বিস্ময়করভাবে স্থিতিশীল’ যা এই মহাবিশ্বের প্রথম দিকের ঘটনাবলী বোঝার জন্য আমাদের সামনে একটি চ্যালেঞ্জ। এই আবিষ্কারের সাথে যুক্ত ইউরোপিয়ান সাউথদার্ন অবজারভেটরি (ইএসও) বলেছে, এসপিটি ০৪১৮-৪৭ নামে অভিহিত এই শিশু গ্যালাক্সি এতো দূরে যে, সেখান থেকে আলো পৃথিবীতে এসে পৌঁছাতে কয়েকশ কোটি বছর লেগেছে এবং আমরা যে ইমেজ পেয়েছি সেটা সেই সুদূর অতীতের। এই নবজাতক গ্যালাক্সির ছবি তখনকার যখন মহাবিশ্বের বয়স হয়েছিল ১৪০ কোটি বছর, যা বর্তমান মহাবিশ্ব ও গ্যালাক্সিসমূহ গঠনের বয়সের মাত্র ১০ শতাংশ।
ইএসও এক বিবৃতিতে জানায়, চিলিতে অবস্থিত ব্যাপক ক্ষমতা সম্পন্ন আলমা রেডিও টেলিস্কোপ গ্রাভিটেশনাল লেনসিং সিস্টেম ব্যবহার করে এই ‘শিশু’ এসপিটি ০৪১৮-৪৭ গ্যালাক্সির ইমেজ ধারণ করা হয়। আমাদের মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির ঘূর্নায়নমান ডিস্ক এবং স্ফিতির বৈশিষ্ট্যের সাথে এই নবজাতক গ্যালাক্সির মিল রয়েছে এবং নক্ষত্রগুলো গ্যালাক্সি কেন্দ্রের চারদিকে ঘন সংবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে।
ইএসও বলেছে, মহাবিশ্বের প্রাথমিক ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এই বর্ণালীবলয় দেখা গেছে। এটি দেখতে আমাদের অতিদূর অতীতের মিল্কিওয়ের মতোই। গবেষকরা ধারণা করছেন, এই নবীন নক্ষত্র সিস্টেম বিশৃঙ্খল হয়ে পড়বে এবং আমাদের ম্যাচিউর মিল্কিওয়ে গ্যালাক্সির মতো নক্ষত্রগুলো স্বতন্ত্র কাঠামো নিয়ে জটিল গ্যালাক্সিতে পরিণত হবে। তবে এতে বলা হয়, এসপিটি ০৪১৮-৪৭ ‘বিস্ময়করভাবে স্থিতিশীল’ মনে হচ্ছে, এটি প্রাথমিক মহাবিশ্বের গ্যালাক্সিগুলোর ভয়ংকর সংক্ষুব্ধ এবং অস্থিতিশীল এই তত্ত্বের সাথে মিলছে না।

Related posts