রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০ | ২৭ আষাঢ় ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

আফিফ ঝড়ে অবশেষে জিতলো বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক: অবশেষে শুক্রবার রাজধানীর মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৩ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। এদিন ব্যাটিংয়ে ধুঁকতে থাকা বাংলাদেশকে খাদের কিনারা থেকে তুলে আনেন তরুণ ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন। আফিফ হোসেনের ৫২ রানের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ দল। অন্যপ্রান্তে থাকা মোসাদ্দেক হোসেনও দেন দারুণ সঙ্গ।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৪৫ রানের জয়ের লক্ষে খেলতে নেমে ধুঁকতে শুরু করে বাংলাদেশ দল। দলীয় ৬০ রানের মাথায় দলটি হারায় ৬ টি মূল্যবান উইকেট।

বাংলাদেশের উইকেটের পতন ঘটে লিটন দাসের সাজঘরে ফেরার মধ্য দিয়ে। সেসময় দলীয় রান ৩ ওভার শেষে ২৬। এর পরের ওভারের প্রথম বলেই জারভিসের বলে ক্যাচ তুলে দেন সৌম্য সরকার। এরপরই শুরু হয় বাংলাদেশ দলের এক ধরণের বিপর্যয়।

এরপরে দলীয় ১ রান মাত্র যোগ হয়। দলীয় ২৭ রানের মাথায় বাংলাদেশের আরেক নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহমানও শূন্য রানে ফিরে যান।

মাঠে নামেন সাকিব আল হাসান। মুশফিকুর রহমান শূন্য রানে ফিরলে সাকিব নিজের রানের খাতায় ১ যোগ করে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরে। বাংলাদেশের দলীয় রান তখন ২৯, ৪ উইকেটের বিনিময়ে।

এরপর একটু হলেও বাংলাদেশকে আশা দেখাতে শুরু করেন মাহমুদুল্লাহ। তবে সে আশার স্থায়িত্ব বেশিক্ষণ হতে দেয়নি জিম্বাবুয়ের বোলাররা। ব্যক্তিগত ১৪ রান তুলে রায়ান বার্ল’র বলে এলবিডব্লিউ এর ফাঁদে পড়েন মাহমুদুল্লাহ। বাংলাদেশের দলীয় রান তখন ৮.১ বল শেষে ৫৬।

মাহমুদুল্লাহ সাজঘরে ফেরার পর বেশিক্ষণ মাঠে টিকতে পারেননি সাব্বিরও। পরের ওভারে ক্যাচ তুলে সাজঘরে যান।

এরপর আবারো স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেন বাংলাদেশের দুই তরুণ ব্যাটসম্যান মোসাদ্দেক হোসেন ও আফিফ হোসেন। দুই এ তরুণ ব্যাটসম্যানের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে জয় পায় বাংলাদেশ। আফিফ হোসেন ৫২ রানে সাজঘরে ফিরলেও ততক্ষণে জয়ের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যায় বাংলাদেশ দল। অবশেষে ১৭ ওভার ৪ বলে ৩ উইকেটে জয় পায় বাংলাদেশ।

এদিন রাজধানীর মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ত্রিদেশীয় সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে টস জিতে বোলিং নেয় বাংলাদেশ। ফলে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে দ্রুত ৫ উইকেট হারিয়ে বসে জিম্বাবুয়ে। শেষে বার্লের দুর্দান্ত হাফ সেঞ্চুরিতে এগিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। তিনি ৩২ বলে ৫৭ রান করে অপরাজিত থাকেন। জিম্বাবুয়ে ১৮ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলে ১৪৪ রান।

এর আগে শুরুতে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে প্রথম উইকেট তুলে নেন তাইজুল। ৭ম ওভারে ক্রেইগ এরভিনকে মাত্র ১১ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরিয়ে এই ইনিংসের ব্যক্তিগত প্রথম উইকেট নেন মুস্তাফিজুর রহমান। ৬ ওভার ৩ বলের মাথায় মুস্তাফিজের বলে ক্যাচ তুলে দেন মোসাদ্দেক হোসেনের হাতে।

৮ম ওভারে হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে ফেরান মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ৭ ওভার ৫ বলে সাব্বিরের হাতে ক্যাচ তুলে দেন মাসাকাদজা। ইনিংসের ৯ম ওভারের প্রথম বলে শন উইলিয়ামসের উইকেট তুলে নেন মোসাদ্দেক হোসেন। সবশেষ ইনিংসের ১০ম ওভারে মাত্র ১ রানে সাকিবের থ্রোতে টিমিসেন মারুমাকে রান আউট করেন মুস্তাফিজ।

এদিকে বৃষ্টির কারণে ভেজা মাঠ প্রস্তুত হওয়ার পর টস হয় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার পর। টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। বৃষ্টির কারণে ১৮ ওভারে নামে উদ্বোধনী ম্যাচটি।

Related posts