শুক্রবার, ২২ জানুয়ারি ২০২১ | ৭ মাঘ ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

আজ বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের ফাইনাল: খুলনা-চট্টগ্রাম মুখোমুখি

স্পোর্টস ডেস্ক: আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু টি-টুয়েন্টি কাপের ফাইনাল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। মুখোমুখি হচ্ছে খুলনা ও চট্টগ্রাম। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচটি শুরু হবে বিকেল ৪টা ৩০ মিনিটে। দেশের নতুন স্পোর্টস চ্যানেল টি স্পোর্টস স্টেডিয়াম থেকে সরাসরি ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে। আর এই ম্যাচে সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতি সত্বেও গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের বিপক্ষে জ্বলে উঠতে মরিয়া জেমকন খুলনা। এর আগে প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামকে ৪৭ রানে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে খুলনা। শ্বশুর অসুস্থ থাকায় ওই ম্যাচের পরই যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়েন সাকিব। তবে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছানোর আগেই তার শ্বশুর মারা গেছেন।
অবশ্য লিগ পর্বে নিজের নামের সুবিচার করতে পারেননি সাকিব। তবে কোয়ালিফাইয়ারে চট্টগ্রামের বিপক্ষে খুলনার জয়ে ভূমিকা ছিল তার; খুলনার আশা ছিল ফাইনালেও জ্বলে উঠবেন। কিন্তু ফাইনালে না থাকায় সাকিবের অনুপস্থিতি দল টের পাবে বলে অকপটে স্বীকার করলেন খুলনার কোচ মিজানুর রহমান বাবুল। তিনি বলেন, অবশ্যই তার অনুপস্থিতি দলে বড় প্রভাব ফেলবে। কারণ, এক সাথে দুজন খেলোয়াড়ের ভূমিকা পালন করে থাকে সাকিব। ফাইনালে আমরা সাকিবকে মিস করব। কিন্তু সবার আগে পরিবার।
বাবুল জানান, সাকিবের অনুপস্থিতি সত্বেও খেলোয়াড়রা অনুপ্রাণিত। কারণ, তারা ফাইনাল খেলছে। আমরা এখানে ট্রফি জিততে এসেছি এবং টুর্নামেন্টের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নিজেদের সেরাটা দিতে চাই। তবে কোয়ালিফাইয়ারে চট্টগ্রামকে হারালেও ফাইনালে জয় পাওয়া সহজ হবে না খুলনার। লিগ পর্বে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করেছে চট্টগ্রাম। ৮ ম্যাচের ৭টিতেই জিতেছে তারা। লিগ পর্বে চট্টগ্রামের সাথে খুলনার বড় পার্থক্য ছিল। ৪ জয়ে লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে ছিল দলটি।
ডাবল-লিগের আসরে দুবারই খুলনাকে হারায় চট্টগ্রাম। প্রথম দেখায় খুলনাকে ৯ উইকেটে হারায় চট্টগ্রাম। চট্টগ্রামের বোলারদের সামনে অসহায় ছিল খুলনার ব্যাটসম্যানরা। মাত্র ৮৬ রানে অলআউট হয় খুলনা। ফিরতি পর্বে ৩ উইকেটে খুলনাকে হারায় চট্টগ্রাম। প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে মাশরাফি বিন মর্তুজার আগুন বোলিংয়ে চট্টগ্রামকে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট পায় খুলনা। টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ার সেরা ৪ ওভারে ৩৫ রানে ৫ উইকেট নেন মাশরাফি।
প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে হারলেও টুর্নামেন্টে টিকে ছিল চট্টগ্রাম। কারন দ্বিতীয় কোয়ালিফাইয়ারে খেলার সুযোগ ছিল চট্টগ্রামের। সেখানে বেক্সিমকো ঢাকাকে ৭ উইকেটে হারায় চট্টগ্রাম। ফলে ফাইনালে খুলনার প্রতিপক্ষ হিসেবে নাম লেখায় চট্টগ্রাম। তাই ফাইনালটি হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে রুপ নিয়েছে। কারণ, লিগ পর্বে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ ২ দল ফাইনাল খেলছে।
টুর্নামেন্টে মাত্র ২টি ম্যাচ হারলেও, ফাইনালের মত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে অভিজ্ঞতার কারনে খুলনাকে এগিয়ে রাখছেন চট্টগ্রামের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তিনি বলেন, আমি মনে করি, টি-টোয়েন্টি ম্যাচ, এখানে অভিজ্ঞতার গুরুত্ব বেশি। খেলোয়াড়দের কারনে উভয় দলই অভিজ্ঞ। তবে অভিজ্ঞতার বিচারে খুলনা আমাদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে।
খুলনাকে এগিয়ে রাখলেও, ট্রফি জয়ের আশা ছাড়ছেন না সালাউদ্দিন। তিনি বলেন, প্লেয়ার ড্রাফটে আমরা অভিজ্ঞতা ও টি-টোয়েন্টিতে পারদর্শী খেলোয়াড়দের নেয়ার চেষ্টা করেছি। আমি মনে করি, আমাদের মিডল-অর্ডার শক্তিশালী এবং সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সেটি প্রদর্শন করা।

Related posts