মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

Select your Top Menu from wp menus

আগামী বছরেই আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ শেষ হবে: রিভা গাঙ্গুলী

আখাউড়া (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি: আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ ভারত-বাংলাদেশ দু’দেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আগামী বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকাস্থ ভারতীয় হাই কমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাস। বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় আখাউড়া-আগরতলা রেলপথের নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে গিয়ে মনিয়ন্দ ইউনিয়নের শিবনগর এলাকায় সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের সাথে উত্তর-পূর্ব ভারতের বাণিজ্যিক যোগাযোগ এ পথের মাধ্যমেই হবে। তাছাড়া কলকাতার সাথে যোগাযোগও এখান থেকেই হতে পারে।’

ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে ভালো সম্পর্ক থাকা সত্বেও সীমান্তে বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশিদের হত্যার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিএসএফ ও বিজিবির মধ্যে ভালো সম্পর্ক রয়েছে। এ বিষয়টি তারা নিজেরা সমন্বয় করবে।’

পরিদর্শনের সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- ভারতীয় হাইকমিশনের প্রথম সচিব আনিতা বারিক, প্রটোকল অফিসার অমরিশ কুমার, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার তাহমিনা আক্তার রেইনা ও আখাউড়া থানার ওসি মো. রসুল আহমেদ নিজামী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, আখাউড়া-আগরতলা রেলপথের দূরত্ব হবে ১৫ কিলোমিটার। এরমধ্যে আখাউড়া রেল জংশন স্টেশন থেকে গঙ্গাসাগর রেলওয়ে স্টেশন হয়ে ত্রিপুরা সীমান্ত পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার। ত্রিপুরা রাজ্যের নিশ্চিন্তপুর হবে দুই দেশের সীমান্ত স্টেশন। সীমান্ত থেকে আগরতলা রেলস্টেশন পর্যন্ত হবে ৫ কিলোমিটার।

২০১৭ সালের অক্টোবরে প্রথম এই রেলপথের নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ত্রিপুরার অংশে এই রেলপথ তৈরি করছে ভারতীয় রেল মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ নির্মাণ সংস্থা ইন্ডিয়ান রেলওয়ে কনস্ট্রাকশন কোম্পানি লিমিটেড (ইরকন)। অন্যদিকে বাংলাদেশ অংশে রেলপথ নির্মাণ করছে বাংলাদেশি স্থানীয় সংস্থা।

এ প্রকল্পে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৮০ কোটি রুপি। এর মধ্যে বাংলাদেশ অংশের ১০ কিলোমিটারের জন্য প্রায় ৪৭৮ কোটি টাকা এবং ভারতের ৫ কিলোমিটার অংশের জন্য ৫৮০ কোটি রুপি।

Related posts