বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

অবশেষে প্রস্তুত ব্রেক্সিট চুক্তি, ডিইউপি’র প্রত্যাখ্যান

এসবিনিউজ ডেস্ক: ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাবার চুক্তি বা ব্রেক্সিট চুক্তি প্রস্তুত। ইউরোপীয় ইউনিয়নের দুই দিনব্যাপী শীর্ষ সম্মেলনের কয়েক ঘণ্টা পূর্বে যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন ব্রেক্সিট চুক্তির একটি খসড়া সম্পর্কে একমত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যদিও উত্তর আয়ারল্যান্ডের রাজনৈতিক দল ডেমোক্রেটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি (ডিইউপি) এ চুক্তি প্রত্যাখ্যান করেছে। খবর বিবিসি’র।

খসড়া চুক্তিতে পৌঁছতে গত কয়েকদিন দিন রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছিলো ইইউ ও ব্রিটেন। ইউরোপীয় ইউনিয়নের শীর্ষ বৈঠক শুরুর কয়েক ঘণ্টা আগে খসড়া চুক্তিতে একমত হবার খবরে স্বস্তি পেয়েছে ব্রেক্সিট পন্থিরা।

বৃহস্পতিবার এক টুইট বার্তায় বরিস জনসন বলেন, ‘আমরা দারুণ একটি চুক্তিতে সম্মত হয়েছি। আশা করছি এর মাধ্যমে ব্রিটেনের পরিবেশ স্বাভাবিক হবে।’

নতুন চুক্তিতে অর্থ, বাণিজ্য, সীমান্ত, এবং আইনগত বিষয় যুক্তরাজ্যের অধীনে থাকবে। এছাড়া উত্তর আয়ারল্যান্ড পণ্য সংক্রান্ত বিষয়ে স্বল্প পরিসরে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্ত থাকবে। তাছাড়া ইইউ এর একক বাজারে উত্তর আয়ারল্যান্ড পণ্য কেনাবেচা করতে পারবে তবে তাদের কাছ থেকে ভ্যাট আদায় করবে যুক্তরাজ্য। তাছাড়া উত্তর আয়ারল্যান্ড শুল্ক ইউনিয়নের সাথে থাকবে কিনা সেটা নির্ধারণ করার অধিকার তাদের থাকবে।

এদিকে ব্রেক্সিট চুক্তির খসড়ায় ইইউ ও যুক্তরাজ্যের একমতের খবরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গিয়েছে। উত্তর আয়ারল্যান্ডের রাজনৈতিক দল ডিইউপি এ চুক্তি প্রত্যাখ্যান করেছে। এই চুক্তির পক্ষে ভোট দেবে না বলেও সাফ জানিয়ে দিয়েছে তারা। লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন এই চুক্তিটি আগেরটি (থেরেসা মে’র সময়কার চুক্তি) থেকেও ভয়ঙ্কর। তবে ইইউ’র প্রেসিডেন্ট জ্যঁ ক্লড জঙ্কার চুক্তিটিকে ‘ন্যায্য এবং সামঞ্জস্যপূর্ণ’ বলে উল্লেখ করেছেন।

তবে ব্রেক্সিট চুক্তির খসড়া তৈরি হলেও এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত এখনই আসছে না। ৩১ অক্টোবরের মধ্যে ইইউ থেকে বেরিয়ে যেতে বরিস জনসনকে পেরোতে হবে দীর্ঘ পথ। চূড়ান্ত মতৈক্যে পৌঁছতে বিরোধী দলের তুমুল বিরোধীতার মুখে ব্রিটিশ পার্লামেন্ট থেকে সবুজ সংকেত পেতে হবে জনসনকে। শনিবার পার্লামেন্টের জরুরি অধিবেশনে ব্রেক্সিট নিয়ে আলোচনা হবার কথা রয়েছে। সেখানে অনুমোদন পেলে চলতি মাসেই জরুরী সম্মেলন আয়োজন করে ব্রেক্সিট আনুষ্ঠানিকতা শেষ করবে ইইউ ।

Related posts