৭৬ হাজার ক্ষুদ্র কৃষককে কারিগরি জ্ঞানবৃদ্ধি বিষয়ে প্রশিক্ষণ


ফেব্রুয়ারি ১২ ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১২জেলার ২৬টি উপজেলার ৭৬ হাজার ৩৪৮জন ক্ষুদ্র কৃষককে কারিগরি জ্ঞানবৃদ্ধিসহ কৃষি বিষয়ে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এতে কৃষকদের মধ্যে বাজার ব্যবস্থাপনা, পুষ্টিজ্ঞান, আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহারসহ অন্যান্য দক্ষতা বৃদ্ধি পেয়েছে। খুলনা শহরে ‘মাঠ ফসলের জন্য সম্প্রসারণ ও উপদেশমূলক সেবার প্রয়োজনীয়তা:প্রকল্পের উদ্যোগ,শিক্ষণীয় বিষয় এবং অগ্রগতির উপায়সমূহ’ শীর্ষক কর্মশালায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। ইউএসএআইডির সহযোগিতায় ঢাকা আহছানিয়া মিশন ও কেয়ার বাংলাদেশ এর উদ্যোগে সোমবার (১২ফেব্রুয়ারি) দিনব্যাপী নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় জানানো হয়, ইউএসএআইডির অর্থায়নে ঢাকা আহছানিয়া মিশন ও কেয়ার বাংলাদেশ ও এমপাওয়ার কর্তৃক পরিচালিত ইউএসএআইডি কৃষি সম্প্রসারণ সহযোগিতা কার্যক্রম-প্রকল্পটি বিদ্যমান কৃষি সম্প্রসারণ সেবা জোরদার করে এবং ভেল্যু চেইনভিত্তিক কৃষি সম্প্রসারণ সেবাসমূহ অধিক কার্যকরী ও স্বার্থকভাবে ক্ষুদ্র কৃষকদের কাছে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশের মধ্য ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চেলের ১২টি জেলার ২৬টি উপজেলায় কাজ করছে। জেলাগুলো হচ্ছে, খুলনা রিজিওনালের খুলনা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাট, যশোর রিজিওনালের যশোর, মাগুরা, ফরিদপুর ও রাজবাড়ী এবং বরিশাল রিজিওনালের বরিশাল, ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী ও পিরোজপুর। প্রকল্পটি উপজেলার মধ্যে খুলনার রূপসা, তেরখাদা ও দাকোপে সফলভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে।

কর্মশালায় জানানো হয়, পাঁচ বছর মেয়াদী এ প্রকল্পটি ২০১২ সালের অক্টোবর মাসে শুরু হয়ে  ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারি মাস পর্যন্ত চলার কথা। তবে কৃষকদের প্রয়োজনের কারণে প্রকল্পটির মেয়াদ বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

কর্মশালায় বলা হয়, মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের কারিগরি জ্ঞান বৃদ্ধিও জন্য কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নানাবিধ কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। ইতোমধ্যে কৃষকদের বাজার ব্যবস্থাপনা,পুষ্টিজ্ঞান, আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতির ব্যবহারসহ অন্যান্য দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য মোটিভেশনাল ট্রেনিং দেয়া হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন বেসরকারি কৃষিভিত্তিক কোম্পানিগুলোকে কৃষকদের সঙ্গে কাজ করার জন্য প্রশক্ষিণসহ নানাবিধ সমস্যা দূরীকরণে একসঙ্গে কাজ করার জন্য উদ্বুদ্ধকরণ করা হয়েছে।

কর্মশালায় জানানো হয়, প্রকল্পের আওতায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চেলের ১২টি জেলার ২৬টি উপজেলার ৭৬ হাজার ৩৪৮জন কৃষক প্রশিক্ষণ নিয়ে উপকৃত হয়েছেন। উপকারভোগী কৃষকদের মধ্যে ৪৭ হাজার ৭০৯জন পুরুষ ও ২৭হাজার ৬৩৯জন নারী কৃষক।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ নিত্যরঞ্জন বিশ্বাস বলেন, কৃষিক্ষাতের উন্নয়নে এই ধরনের অনুষ্ঠানের প্রয়োজনীয়তা ও যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। তিনি বলেন, সকলে মিলে একযোগে কাজ করলে দেশের মাঠ ফসল খাতের যথেষ্ট উন্নয়ন হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন, খুলনা বিএডিসির সীড মার্কেটিং বিভাগের উপ-পরিচালক মুহা.লিয়াকত আলী ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খুলনা অঞ্চলের উপ-পরিচালক মুহা.আব্দুল লতিফ।

 


এক্সক্লুসিভ


সাক্ষাৎকার

Ad Space

আইন-আদালত


শিল্প-সাহিত্য

Ad Space

ভ্রমণ

ফিচার

Ad Space

পরিবেশ

Ad Space

আবহাওয়া

Ad Space

রাশিফল


Ad Space