খুবিতে আন্তঃহল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ


ফেব্রুয়ারি ৭ ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তঃহল (ছাত্র) ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ বুধবার (৭ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় খান বাহাদুর আহছানউল্লা হল মিলনায়তনে হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. সরদার শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান।

প্রধান অতিথি এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন, সহশিক্ষা কার্যক্রম শিক্ষার্থীদের প্রতিভা বিকাশ করে। বিভিন্ন অপসংস্কৃতি থেকে দূরে রাখে। যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলে, পরিচিতি বাড়ায়। কিন্ত মোবাইল ফেসবুকসহ আধুনিক প্রযুক্তি আমাদের সংস্কৃতিতে রূপান্তর ঘটিয়েছে। সংস্কৃতি চর্চার ক্ষেত্রেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। এর ফলে বিশ্ববিদ্যালয়সহ যুব সমাজের মধ্যে নানা সমস্যারও উদ্ভব হয়েছে। তিনি বলেন এখন মাঠে মাঠে খেলাধুলা কম হয়, স্কুল কলেজে এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ে অংশগ্রহণমূলক সাংস্কৃতিক কার্যক্রম কমে গেছে। ফলে তাদের মধ্যে মানসিক বিকাশ বা প্রফুল্লচিত্তের অভাব দেখা দিচ্ছে। তিনি বর্তমান সমাজে মাদকের ছোঁবল এখন অশনিসংকেত বলে অবিহিত করে বলেন এর ফলে অনেক পরিবার ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। তাই তিনি এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সজাগ থাকার পরামর্শ দেন এবং বেশি করে খেলাধুলাসহ সহশিক্ষা কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার আহবান জানান। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তঃহল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা আগের তুলনায় বৃদ্ধিতে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন আগামী বছর থেকে ইভেন্টের সংখ্যা বাড়ানো হবে এবং আরও অধিক সংখ্যায় আবাসিক শিক্ষার্থীরা অংশ নিতে পারবে।

তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তঃহল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার আয়োজনের জন্য সংশ্লিষ্ট হলসমূহের প্রভোস্টদের ধন্যবাদ জানান। পরে তিনি বিভিন্ন ইভেন্টে বিজয়ীদের মধ্যে পুরষ্কার বিতরণ করেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর ড. আশীষ কুমার দাস, খানজাহান আলী হলের প্রভোস্ট (চলতি দায়িত্ব) প্রফেসর ড. আবু শামীম মোহাম্মদ আরিফ, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের প্রভোস্ট (চলতি দায়িত্ব) মোঃ নাজমুল হাসান এবং আয়োজক কমিটির আহবায়ক সহকারী প্রভোস্ট ড. উৎপল কুমার কর্ম্মকার। অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে খানজাহান আলী হলের আরমান ইসলাম, খান বাহাদুর আহছানউল্লা হলের রাকিবুল ইসলাম এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের আকিবুল ইসলাম সুমন বক্তব্য রাখেন। এসময় রেজিস্ট্রার(ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. এস এম রফিজুল হক, শারীরিক শিক্ষা চর্চা বিভাগের পরিচালক(ভারপ্রাপ্ত) মোল্লা মোহাম্মদ শফিকুর রহমান, সহকারী ছাত্রবিষয়ক পরিচালক ও সহকারী প্রভোষ্টবৃন্দ এবং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী ও বিজয়ী ছাত্ররা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে অনুষ্ঠানে দেশাত্ববোধক গান ও কবিতা আবৃত্তি করা হয়।


এক্সক্লুসিভ


সাক্ষাৎকার

Ad Space

আইন-আদালত


শিল্প-সাহিত্য

Ad Space

ভ্রমণ

ফিচার

Ad Space

পরিবেশ

Ad Space

আবহাওয়া

Ad Space

রাশিফল


Ad Space