পাটকল শ্রমিকদের ৪৮ ঘন্টা ধর্মঘটসহ নতুন কর্মসূচি ঘোষণা


জানুয়ারি ৯ ২০১৮

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনাসহ সারাদেশের পাটকল শ্রমিকরা ২১ দিনের টানা আন্দোলন ও ১২ দিন কর্মবিরতি পালনে পাটমন্ত্রনালয় ও বিজেএমসির  সিদ্ধান্তের বরফ গলেনি। দ্বিতীয় দফায় মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা রিপোটর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ৪৮ঘন্টা ধর্মঘটসহ রেলপথ রাজপথ অবরোধ কর্মসূচী ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ পাটকল  সিবিএ-নন সিবএ নেতারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পরিষদের আহ্বায়ক সরদার মোতাহার উদ্দিন। লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, বিগত সরকারের বন্ধ করা পাটকল বর্তমান সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় চালু হয়। কিন্তু পাটকলের দীর্ঘদিনের পুরাতন যন্ত্রপাতি দিয়ে আগের মত উৎপাদন দেয়া সম্ভব হয়না। এ পাটকলের আধুনিকায়ন ও শ্রমিকদের উন্নয়নের  জন্য বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী এক হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিলেও এখন পর্যন্ত বিজেএমসি  শ্রমিকদের মজুরী কমিশনসহ অন্য দাবীর বাস্ত বায়ন করেনি। শ্রমিকদের সাপ্তাহিক মজুরী পর্যন্ত নিয়মিত প্রদান করেনা বিজেএমসি। শ্রমিকরা উপায়হীন হয়ে গত ২৮ ডিসেন্বর থেকে উৎপাদন বন্ধ করে কর্মবিরতি পালন করে। মঙ্গলবার পর্যন্ত তারা ১১তম দিনের কর্মবিরতি পালন করে। প্রথম দফায় ১১দিনের কর্মসূচী পলন শেষে এপর্যন্ত মন্ত্রনালয় এমনকি বিজেএমসিও কোন কর্নপাত করেনি। যে কারনে আগামী ১২ জানুয়ারী জনসভার মাধ্যমে নতুন কর্মসূচী ঘোষণা দেয়া হবে বলে জানান এ শ্রমিক নেতা। এসময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ নন সিবিএ পরিষদের কার্যকরী আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পাটকল সিবিএ নন সিবিএ পরিষদ  যুগ্ম আহ্বায়ক  ইউএমসি মিলের সিবিএ নেতা আনিচুর রহমান, খালিশপুর জুটমিলের সিবিএর কার্যকরী সভাপতি চৌধুরী মিজানুর রহমান মানিক, বাংলাদেশ জুটমিলের  সিবিএ সভাপতি ইউসুফ আলী সরদার, সাধারন সম্পাদক আকতারুজ্জামান, স্টার জুটমিলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান, হাফিজ জুটমিলের সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম চৌধুরী, করিম জুটমিলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম, আমিন জুটমিলের সিবিএ নেতা আরিফুর রহমান,  সভাপতি মল্লিক বেল্লাল হোসেন  ইর্ষ্টান মিলের সিবিএ“র সভাপতি মোঃ আলাউদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জাকির হোসেন প্রমুখ।

পে-কমিশনের ন্যায় একই তারিখ থেকে মজুরী কমিশন ঘোষণা ও বাস্তবায়ন,অবিলম্বে রাষ্ট্রায়ত্ব শিল্পে শ্রমিকদের জন্য মজুরী কমিশন বোর্ড গঠন,  ২০% মহার্ঘ্য ভাতার অপরিশোধিত বকেয়া এককালীন পরিশোধ, বকেয়া মজুরী-বেতন পরিশোধ, প্রতি সপ্তাহে ও মাসে শ্রমিক-কর্মচারীদের মজুরী-বেতন নিয়মিত প্রদান, বদলী শ্রমিকদের স্থায়ী করণের দাবীতে ২য় দফার   কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ১৩ জানুয়ারী সকাল ১০টায় স্ব-স্ব মিলে গেট সভা ঢাকা ও চট্রগামে ২য় পর্যায়  কর্মসূচী ঘোষণা, ১৫ জানুয়ারী পাট অধ্যুষিত অঞ্চলের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে স্মরকলিপি প্রদান,১৭ জানুয়ারী লাল পতাকা মিছিল, ২১ জানুয়ারী সকাল ১০ টায় লালপতাক মিছিল,২৪ জানুয়ারী ভুখা মিছিল,২৫ জানুয়ারী স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকটনিক্স মিডিয়ার সাথে বৈঠক, ২৬ জানুয়ারী বিকাল ৩টায় জনসভা, ২৮ জানুয়ারী থেকে ৪৮ ঘন্টা ধর্মঘট ও বিক্ষোভ মিছিল, ৩১ জানুয়ারী সকাল ৮টা থেকে বেলা ১২ টা পর্যন্ত  ৪ঘন্টা রেলপথ রাজপথ অবরোধ। দাবী মানা না হলে ৪ জানুয়ারী কেন্দ্রীয় কমিটি ঢাকায় বৈঠক করে পরবর্তী কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে।

 


এক্সক্লুসিভ


সাক্ষাৎকার

Ad Space

আইন-আদালত


শিল্প-সাহিত্য

Ad Space

ভ্রমণ

ফিচার

Ad Space

পরিবেশ

Ad Space

আবহাওয়া

Ad Space

রাশিফল


Ad Space