ভূমিহীন আন্দোলনকে স্তব্ধ করতেই সাইফুল্লাহকে হত্যা করা হয়: তোজাম্মেল


ডিসেম্বর ৫ ২০১৭

তালা (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি: আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বিকল্প আন্দোলন ও সংগ্রামের মধ্য দিয়ে কিভাবে নির্যাতিত ও নিপীড়িত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা যায় তার রূপকার ছিলেন প্রয়াত কৃষক নেতা সাইফুল¬াহ লস্কর। তিনি আজীবন খেঁটে খাওয়া মানুষের জন্য লড়াই করে গেছেন। কৃষক ও কৃষির সমস্যাই মূলত জাতীয় সমস্যা,যার সমাধানে আমৃত্যু আন্দোলনকারী মহান নেতা সাইফুল্লাহ লস্করকে ২০০৯ সালের ৫ ডিসেম্বর পুলিশ ও ভূমি দস্যুরা নির্মমভাবে হত্যা করে। মহান এ নেতার  ৮ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় উপরোক্ত কথাগুলো বলেন, জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি তোজাম্মেল হোসেন। এসময় তিনি তার হত্যার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে তালা ডাক বাংলা চত্বরে বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটি আয়োজিত স্মরণ সভায়  সভাপতিত্ব করেন,কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক তাপস বিশ্বাস।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,সাতক্ষীরা জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকির হোসেন লস্কর শেলী,খুলনা জেলা ট্রেড ইউনিয়নের সভাপতি নাজিউর রহমান নজু,বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সাধারণ সম্পাদক মিঠুন চক্রবর্তী,খুলনা জেলা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের সভাপতি মোঃ আবুল হোসেন,ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম শামিমুল হক,সাংবাদিক রঘু নাথ খাঁ,তালা থানা গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের সভাপতি আব্দুল হাকিম,ফ্রন্টের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল হাই,দপ্তর সম্পাদক আছাবুর রহমান,জাতীয় ছাত্রদল যশোর জেলা নেতা সমীরণ বিশ্বাস,বিশ্বজিৎ বিশ্বাস,জাসদ নেতা দেবাশীষ দাশ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন,তিনি ছিলেন প্রবীণ কৃষক নেতা,বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ও দক্ষিণাঞ্চলের ভূমিহীন কৃষক আন্দোলনের অন্যতম প্রধান পথিকৃৎ। শহরতলীর ইসলামপুর চর আন্দোলন, কালিগঞ্জের বাবুরাবাদ, চিংড়িখালি-বৈরাগীর চক, আশাশুনির বসুখালি, শ্যামনগরের যমুনা নদীর চর, দেবহাটার ঢেবুখালিসহ জেলার বিভিন্ন স্থানে ভূমিহীন আন্দোলনের নেতৃত্বে ছিলেন তিনি। এ ছাড়া সার, বীজ, কীটনাশক, বিদ্যুৎ, কৃষি জমি বাঁচাও আন্দোলনের তিনি ছিলেন পুরোধা। কেশবপুরের ভবদাহ আন্দোলনে তার ভূমিকা ছিল গুরুত্বপূর্ণ। তার সুচিন্তিত পরিকল্পনায় প্রশাসন ভূমিদস্যুদের পক্ষে থাকলেও বহু খাস জমি উদ্ধারের পর তা ভূমিহীনদের মাঝে দলিল করে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

সমগ্র সভাটি সঞ্চালনা করেন,বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির যশোর জেলা সাধারণ সম্পাদক কামরুল হক লিখু। এর আগে সকাল ১০ টায় দলের পক্ষ থেকে সাইফুল্লাহ লস্করের সাতক্ষীরার কাটিয়ায় পারিবারিক কবরস্থানে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। এছাড়া সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে তার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে অনুরুপ স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আনিসুর রহিমের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ, জাসদ নেতা মুক্তিযোদ্ধা কাজী রিয়াজ, ওয়ার্কার্স পার্টির নেতা অ্যাড. ফাহিমুল হক কিসলু, জাসদ নেতা সুধাংশু শেখর সরকার,প্রভাষক ইদ্রিস আলী, বাসদ নেতা অ্যাড. আজাদ হোসেন বেলাল, সিপিবি নেতা আবুল হোসেন, সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ, শ্রমিক নেতা মোমিন হোসেন, প্রতিবন্ধি আমিনুর হোসেন প্রমুখ।

 

এক্সক্লুসিভ

সাক্ষাৎকার

আইন-আদালত

শিল্প-সাহিত্য

ভ্রমণ

ফিচার

পরিবেশ

আবহাওয়া

রাশিফল


Ad Space