খুলনায় দু’দিনব্যাপী স্বাস্থ্য মেলা শুরু


ডিসেম্বর ৬ ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে বুধবার থেকে নগরীর শামসুর রহমান রোডস্থ স্কুল হেলথ কিনিক চত্ত্বরে শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী স্বাস্থ্য মেলা-২০১৭। প্রধান অতিথি হিসেবে মেলার উদ্বোধন করেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য  বলেন, খুলনা এক সময় স্বাস্থ্য সেবাসহ বিভিন্ন দিক থেকে অবহেলিত  ছিল। কিন্তু জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সুদৃষ্টির কারণে আজ স্বাস্থ্যসেবা, যোগাযোগ ব্যবস্থা, অবকাঠামো উন্নয়নসহ সকল সেক্টর ঘুরে দাঁড়িয়েছে । খুলনায় এ ধরনের ব্যতিক্রমধর্মী মেলা প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হওয়ায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, এ মেলার মাধ্যমে সেবা গ্রহীতা ও সেবা দাতা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দূরত্ব কমে আসবে। সাধারণ মানুষ তার সেবা গ্রহণের অধিকার সম্পর্কে  আরও সচেতন হবে। তিনি এ মেলায় বিভিন্ন    স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে আয়োজক কর্তৃপক্ষকে পরামর্শ দেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ আমিন উল আহসান, স্বাস্থ্য বিভাগের উপ সচিব আবু মমতাজ সাদ উদ্দিন এবং খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের উপপরিচালক ডা. আবুল ফজল। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন ওয়েভ ফাউন্ডেশনের প্রকল্প সময়ন্বকারী অনিরুদ্ধ রায় এবং ইউনিসেফের খুলনা জোনাল হেলথ অফিসার  ডা. এস এম নাজমুল আহসান।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক। তিনি খুলনা জেলার গত দশ মাসের মা ও শিশু স্বাস্থ্যের পরিসংখ্যান তুলে ধরেন। তিনি জানান প্রসবকালীন শিশু মৃত্যুর হার প্রতি লাখে ১৯৬ জন থেকে ১৭০ জনে নেমে এসেছে। শিশু মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ১৪ জন যা এসডিজি লক্ষ্যমাত্রায় ১২ জন। অপরদিকে পাঁচ বছরের নিচে শিশু মৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ২২জন যা এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা ২৫ জন। তিনি আরও বলেন, গর্ভকালীন ও প্রসব পরবর্তী মা  ও শিশু স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের সহযোগিতা করার জন্য খুলনা জেলায় ৭৩০জন স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছে।

মেলায় বিভিন্ন সরকারি ও সেরকারি স্বাস্থ্য সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের ৩৫টি স্টল রয়েছে। মেলা প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৬ পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

 

এক্সক্লুসিভ

সাক্ষাৎকার

আইন-আদালত

শিল্প-সাহিত্য

ভ্রমণ

ফিচার

পরিবেশ

আবহাওয়া

রাশিফল


Ad Space