গ্রেফতারকৃত নেতাদের মুক্তির দাবিতে বিএনপির প্রেসব্রিফিং


নভেম্বর ৬ ২০১৭

স্টাফ রিপোর্টার: দুই উপজেলা সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানসহ দলের ১০ নেতাকে গ্রেফতার ও দেড়শ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে সাজানো নাশকতা মামলা দায়েরের তীব্র নিন্দা এবং অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত নেতাদের মুক্তির দাবি জানিয়েছে খুলনা জেলা বিএনপি। সোমবার (৬ নভেম্বর) দুপুরে নগরীর কেডিঘোষ রোডের দলীয় কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনা।

তিনি বলেন, গত শনিবার রাতে কয়রা উপজেলার মহেশ্বরীপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলামের বাবুরাবাদ গ্রামের বাড়িতে সামাজিক একটি অনুষ্ঠান ছিল। বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত একজন নেতা তার পারিবারিক দাওয়াতে নিজের আত্মীয়স্বজন ও স্থানীয় গ্রামবাসীর পাশাপাশি বিএনপির নেতৃস্থানীয় পর্যায়ের অনেককেই দাওয়াত দিয়েছিলেন। অত্যন্ত স্বাভাবিকভাবে সে দাওয়াতে অংশ নিতে অনেক সাধারণ মানুষের সাথে বিএনপির নেতারাও সেখানে গিয়েছিলেন। সেখানে সামাজিক ও পারিবারিক প্রসঙ্গ ছাড়া রাজনীতি নিয়ে ন্যূনতম কোন আলাপই হয়নি। আর পারিবারিক একটি অনুষ্ঠানে নাশকতার পরিকল্পনার ছক আটার প্রশ্নই ছিল না।

কিন্তু হঠাৎ করে কয়রা থানা পুলিশ সেখানে গিয়ে স্থানীয় উপজেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাডভোকেট মোমরেজুল ইসলাম, পাইকগাছা উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক ডা. আব্দুল মজিদ, পাইকগাছা পৌর বিএনপির আহবায়ক স্থানীয় সভাপতি অ্যাডভোকেট  আব্দুস সাত্তার, বিএনপির কেন্দ্রীয় তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলালের ভাই শেখ জাহিদুল বারী রনি, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাহাদাত হোসেন ডাবলু, কাজী হাবিবুর রহমান রিটু, রূপসা উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি বিকাশ মিত্র, ই¯্রাফিল হোসেন, তাজউদ্দিন আহমেদ ও আরিফ শেখসহ ১০জনকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দেয়া হয়েছে। মামলায় ২৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ১৫০জনকে আসামি করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদেরকে জেল হাজতে পাঠিয়ে এখন রিমা-ে নিয়ে তাদের নির্যাতন করার পরিকল্পনা চলছে।

তিনি বলেন, পুলিশ শুধু বিএনপির নেতাকর্মীদেরই হয়রানি করছে না, গ্রামের সাধারণ মানুষকেও নানাভাবে নির্যাতন করছে।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃত বিএনপির নেতাকর্মীদের অবিলম্বে নি:শর্ত মুক্তিদেয়া না হলে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আমীর এজাজ খান, খান জুলফিকার আলী জুলু, মনিরুজ্জামান মন্টু, খান আলী মুনসুর, আবু হোসেন বাবু, কামরুজ্জামান টুকু, মুর্শিদুর রহমান লিটন, খায়রুল ইসলাম খান জনি, মোল্লা সাইফুর রহমান, খন্দকার ফারুক হোসেন, শামসুল আলম পিন্টু, শামীম কবীর, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি, গোলাম মোস্তফা তুহিন, গাজী আব্দুল হালিম, আবুল কালাম লস্কর, এস এম এ কাফি সখা, শামসুল বারিক পান্না, রফিকুল ইসলাম বাবু, আমিরুল ইসলাম তারেক, আব্দুর রহমান প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ

সাক্ষাৎকার

আইন-আদালত

শিল্প-সাহিত্য

ভ্রমণ

ফিচার

পরিবেশ

আবহাওয়া

রাশিফল


Ad Space