মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ ♦ ৪ ভাদ্র ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

৩১ অক্টোবর কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হবে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ

এসবিনিউজ ডেস্ক: আগামী ৩১ অক্টোবর সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ১৪৪তম জন্মবার্ষিকীতে নতুন দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করবে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ। পার্লামেন্টে পাস হওয়া জম্মু ও কাশ্মীরকে দুটি রাজ্যে পৃথকীকরণের বিল শনিবার ভারতের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দঅনুমোদন করেছেনবলে এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

গত সপ্তাহে লোকসভায় বিলটি পাসের পর রাষ্ট্রপতির কাছে তা পাঠানো হয়েছিল। বিরোধী কয়েকটি দল এই বিলের বিরোধিতা করলেও বাকিরা সমর্থন জানায় সরকারকে। অবশ্য রাজ্যসভায় বিলটি পাস হয়ে গেছে।

বিলটি নিয়ে পার্লামেন্টে বিতর্ক চলাকালে জওহরলাল নেহেরু ও সর্দার প্যাটেলের নাম উল্লেখ করেছিলেন বিলের স্বপক্ষে থাকা সংসদের প্রতিনিধিরা। তাদের দাবি, সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদের ইতি চেয়েছিলেন এই দুই ব্যক্তিত্বও।

প্রসঙ্গত, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ গত সপ্তাহে পার্লামেন্টে ঘোষণা করেন, অনুচ্ছেদ ৩৭০ ধারা রদ করে জম্মু ও কাশ্মীরকে পৃথক রাজ্যের মর্যাদা দেওয়া হবে।কংগ্রেসের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও অমিত রাষ্ট্রপতির সমর্থনে রাজ্য বিভক্তিকরণের ঘোষণা করেন।

এই ঘোষণার আগে ভারতে এবং উপত্যকায় যাতে কোনো অশান্তি বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে না পারে তার জন্য প্রচুর আধাসামরিক বাহিনী মোতায়েন করে কেন্দ্র। এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার একদিন আগে গৃহবন্দি করা হয় সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ ও মেহবুবা মুফতিসহ একাধিক নেতাকে।

সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের ভাস্কর্য— এনডিটিভি

পাশাপাশি এই পদক্ষেপের পরে রাজ্য সরকার অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছিল। উপত্যকায় সাময়িক মোবাইল ও ইন্টারনেট পরিসেবা বন্ধ রাখা হয়েছিল। নিষিদ্ধ করা হয়েছিল সমাবেশ। এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের আগে অংশীজনদের সঙ্গে পরামর্শ করা হয়নি বলে বিরোধিতা করে প্রতিবাদ জানিয়েছিল কংগ্রেসসহ মুষ্টিমেয় কিছু দল।

বৃহস্পতিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া এক ভাষণে বলেন, জম্মু ও কাশ্মীর দীর্ঘদিনের জন্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে থাকবে না। একইসঙ্গে তার আশ্বাস, রাজ্যের পরিস্থিতি শিগগিরই স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে।

Related posts