মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ ♦ ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

‘শিশুদের মধ্যে দেশপ্রেম ও নিষ্ঠাবোধ জাগ্রত করতে হবে’

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, শতাব্দির মহানায়ক স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বাঙালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ভাষা আন্দোলন হতে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলন এবং স্বাধীনতা সংগ্রামে তাঁর অবদান অবিস্মরণীয়। তাঁর আজীবন ত্যাগ ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে স্বাধীন দেশ হিসেবে বিশ্ব দরবারে মাথা উচু করে দাঁড়াতে পেরেছি। তাই বাঙালী জাতি চিরকাল শ্রদ্ধা ও কৃতজ্ঞতার সাথে বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করবে।
সিটি মেয়র রোববার (১৭মার্চ) নগর ভবনে আয়োজিত শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও কেক কাটা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এর আগে সিটি মেয়র নগর ভবনে রক্ষিত বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তাবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং জন্মদিনের কেক কাটেন।
সিটি মেয়র আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু শিশুদের খুবই ভালোবাসতেন। তিনি বিশ্বাস করতেন সুখী সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলতে হলে শৈশব থেকেই শিশুদের মধ্যে দেশপ্রেম ও নিষ্ঠাবোধ জাগ্রত করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনকে জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালনের মাধ্যমে নতুন প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ সম্পর্কে জানতে পারবে। শিশুরা দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে আগামীতে দেশ ও জাতি গঠনে অবদান রাখতে সক্ষম হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
কেসিসি’র কাউন্সিলর মো: মনিরুজ্জামান-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন প্যানেল মেয়র মো: আমিনুল ইসলাম মুন্না, মো: আলী আকবর টিপু, কাউন্সিলর এস এম খুরশিদ আহম্মেদ টোনা, ইমাম হাসান চৌধুরী ময়না, ফকির মো: সাইফুল ইসলাম, মো: সুলতান মাহমুদ পিন্টু, মো: ডালিম হাওলাদার, সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পারভীন আক্তার, কনিকা সাহা, মাহমুদা বেগম, মাজেদা খাতুন, সচিব মো: আজমুল হক ও প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো: আব্দুর রহমান। স্বাগত বক্ততৃা করেন কেসিসি’র শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক কর্মকর্তা এসকেএম তাছাদুজ্জামান। কেসিসি’র কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ নগরীর গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
পরে সিটি মেয়র চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

Related posts