শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯ ♦ ৭ বৈশাখ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ কাম্য নয়: শিক্ষামন্ত্রী

এসবিনিউজ ডেস্ক: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, জ্ঞান বিতরণ একটি মহৎ কাজ। তাই শিক্ষকরা পরম শ্রদ্ধার, পূজনীয় ও অনুকরণীয়। কিন্তু সা¤প্রতিক সময়ে শিক্ষকদের কিছু কর্মে এবং অতিরিক্ত অর্থলোভ ঐ ঐতিহ্য হারিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে, যা দেশবাসীকে হতাশ করছে। সকলকে মনে রাখতে হবে অর্থের চেয়ে সম্মান বড়। শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। সরকার শিক্ষাকে বাণিজ্যের ঊর্ধ্বে রাখতে চায়।
মন্ত্রী বৃহস্পতিবার (২১মার্চ) রাজধানীর উত্তরার ১৪ নং সেক্টরে ইন্টান্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অভ্ বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজি (আইইউবিএটি) এর ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। আই ইউ বিএটি’র উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুর রবের সভাপতিত্বে সমাবর্তন বক্তা ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. আবুল কালাম আজাদ চৌধুরী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন।
মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিগত দশ বছরে শিক্ষা ক্ষেত্রে বাংলাদেশে অনেক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। এখন সময় এসেছে শিক্ষার গুণগত মানোন্নয়ন কাজ করার। সরকার চায় শিক্ষাকে ব্র্যান্ডিং করতে। আমরা মেইড ইন জার্মানি দেখলে নির্দ্বিধায় কোন জিনিস কিনি, একজন ননটেকনিকেল মানুষও আইফোন বা স্যামসাং মোবাইল ফোন প্রায় এক লাখ টাকা দিয়ে বিনা সংকোচে কেনে, কারণ তারা ঐ পণ্যের মান সম্পর্কে নিশ্চিত। একইভাবে আমাদের গার্মেন্টস সারা বিশ্বে সুনাম অর্জন করেছে। সবাই জানে বাংলাদেশের গার্মেন্টস ভাল। এটাই হচ্ছে ব্র্যান্ডিং। ঠিক তেমনি আমরা আমাদের শিক্ষাকে ব্র্যান্ডিং করতে চাই। বাংলাদেশ ও সারা বিশ্বের মানুষ জানবে বাংলাদেশের শিক্ষার মান ভাল। বিদেশ থেকে ছেলে মেয়েরা বাংলাদেশে পড়তে আসবে। তাই আগামী দিনে কোয়ালিটি এডুকেশন এবং কারিগরি শিক্ষা হবে আমাদের প্রধান অগ্রাধিকার। কোয়ালিটি এডুকেশন নিশ্চিত করতে ছাত্র, শিক্ষক, অভিভাবক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তৃপক্ষসহ আমাদের সকলকে দায়িত্বশীল হতে হবে।

Related posts