বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯ ♦ ৫ আষাঢ় ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী জয়ী

এসবিনিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের স্থগিত তিন কেন্দ্রের ভোট পুনরায় গ্রহণ করা হয়েছে। বুধবার (৯ জানুয়ারি)সকাল ৮টায় শুরু হয়ে বিকাল ৪টা পর্যন্ত এই ভোটগ্রহণ চলে। আশুগঞ্জ উপজেলার বাহারদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সোহাগপুর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রগুলোতে ২০টি বুথে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটে বিএনপির প্রার্থী আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া নির্বাচিত হয়েছেন। ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ৮৩ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়েছেন তিনি। তার নিটকতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মঈন উদ্দিন কলার ছড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ৭৫ হাজার ৪১৯ ভোট।
আজ কঠোর নিরাপত্তা বলয়ের মধ্য দিয়ে স্থগিত ৩ কেন্দ্রে পুনরায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। তিন কেন্দ্রের ফলাফলে ধানের শীষ প্রতীকে সাত্তার পেয়েছেন ১ হাজার ২৭৪ ভোট আর কলার ছড়ি প্রতীকে মঈন পেয়েছেন ২ হাজার ৮৫৫ ভোট।
এদিকে এই নির্বাচনের সার্বিক আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণের দায়িত্বে ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগের পুলিশের অতিরিক্ত উপমহাপরিদর্শক (এডিশনাল ডিআইজি) রোকন উদ্দিন। নির্বাচনের সকল কাজ সুষ্ঠুভাবে হচ্ছে কি না-এসব দেখার জন্য নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিব মো. আব্দুল বাতেন, উপসচিব সাহেদুন্নবী চৌধুরী ও মঈন মিয়াও বর্তমানে আশুগঞ্জে উপস্থিত ছিলেন।
এর আগে গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে (বাতিলকৃত তিন কেন্দ্র বাদে) বিএনপি মনোনীত প্রার্থী সাত্তার ধানের শীষ প্রতীকে- ৮২৭২৩ ভোট পেয়ে প্রথম এবং কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ সহ-সভাপতি, স্বতন্ত্র প্রার্থী মঈনউদ্দিন কলার ছড়ি প্রতীকে ৭২৫৬৪ ভোট পেয়ে দ্বিতীয় হন। দুই প্রার্থীর ভোটের পার্থক্য- ১০১৫৯ ভোট এবং স্থগিতকৃত ৩টি কেন্দ্রের ভোটার সংখ্যা- ১০৫৭৪ ভোট। স্থগিতকৃত ৩ কেন্দ্রের ভোটার সংখ্যা ও দুই প্রার্থীর প্রাপ্ত ভোটের পার্থক্যের বিয়োগফল ৪১৫ ভোট।
ওই দিন অনিয়ম ও গোলযোগের কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সোহাগপুর (দক্ষিণ) সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখা হয়। পরে পুনঃভোটগ্রহণের জন্য ৯ জানুয়ারি নির্ধারণ করে নির্বাচন কমিশন।

Related posts