বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯ ♦ ৬ ভাদ্র ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

‘বাঙালি-অবাঙালির মধ্যে বিভাজনের চেষ্টা করছে বিজেপি’

এসবিনিউজ ডেস্ক: বিজেপি পশ্চিমবঙ্গের বাঙালি এবং অ-বাঙালি মানুষদের মধ্যে বিভাজন তৈরির চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মমতা বলেন, বিজেপি রাজ্যের মধ্যে বাঙালি আর অ-বাঙালিদের মধ্যে বিভাজন করতে চাইছে। ওরা বাংলার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায়। আমি বিজেপির মতো একটি রাজনৈতিক দলকে ঘৃণা করি। আমি দেশের সাধারণ মানুষকে বলব বিজেপির এই সাম্প্রদায়িক বিভাজনের বিরুদ্ধে আপনারা সরব হন। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।
লোকসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার পর বৃহস্পতিবার প্রথম রাজনৈতিক কর্মসূচি করলেন মুখ্যমন্ত্রী। নৈহাটি এলাকায় বহু তৃণমূল কর্মীকে ঘরছাড়া হতে হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। ঘরছাড়াদের ঘরে ফেরাতে উদ্যোগ নেন মমতা। বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন মমতা।
মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বিজেপির গুণ্ডারা ৪শ’বাঙালি পরিবারকে ঘরছাড়া করেছে। তাদের আমি ক্ষমা করব না।
তিনি বলেন, আমি জানতে পেরেছি পুলিশ কর্মীদের একাংশ বিজেপির সঙ্গে অশুভ আঁতাত করেছে। আমরা এ সমস্ত সহ্য করব না। যারা এ ধরনের কাজ করেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা হবে।
এদিকে আরএসএসের স্বয়ং সেবকদের সঙ্গে সমানে সমানে লড়াই করতে তৃণমূল কর্মীদের দুটি বিশেষ বাহিনী তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন মমতা। তার মধ্যে একটি হলো বঙ্গজননী বাহিনী অন্যটি জয় হিন্দ বাহিনী। রাজ্যের সমস্ত ব্লকে এই দুই বাহিনী কাজ করবে। বিজেপি এবং আরএসএসের ‘ভয়াবহতা’ সম্পর্কে সচেতন করা এবং জনসংযোগ রক্ষা করাই এই দুই বাহিনীর কাজ হবে।

Related posts