বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ♦ ৪ আশ্বিন ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

বর্জ্য বদলে পরিবেশ বান্ধব গাছ

স্টাফ রিপোর্টার: বাড়ি বাড়ি ঘুরে একদল উদ্যমী তরুণ অপচনশীল বর্জ্য সংগ্রহ করছে। বর্জ্য নিয়ে গৃহস্থকে তারা উপহার দিচ্ছে গাছ। খুলনা নগরীতে চমকপ্রদ এ উদ্যোগটি শুরু করেছে ‘ইজি ডোর’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন।

শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নগরের হাজী মহসিন রোড থেকে ৩০জন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পড়ূয়া শিক্ষার্থী একত্রিত হয়ে ‘ইজি ডোর’ সংগঠনের যাত্রা শুরু করে। সংগঠনটির মূল উদ্যোক্তা নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী তানভীর আহমেদ সজল। ‘ইজি ডোর’ এর যাত্রা শুরুর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন খুলনা সদর থানা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফকির সাইফুল ইসলাম।

কার্যক্রম উদ্বোধনের সময় সদর থানা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ফকির সাইফুল ইসলাম বলেন, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ঈমাণের অঙ্গ। ইজি ডোরের সদস্যরা অপচনশীল বর্জ্য সংগ্রহ করে সঠিক উপায়ে সেগুলো বিনষ্ট করে। যে ময়লা পরিবেশের জন্য হুমকি স্বরুপ, সেগুলোই তারা নষ্ট করছে। আমাদের সবার উচিত এ উদ্যোগটিকে স্বাগত জানিয়ে সাড়া দেওয়া।

ইজি ডোর’র প্রতিনিধি তানভীর আহমেদ সজল বার্তা বলেন, ইজি ডোর একটি বর্জ্য ব্যবস্থাপনামূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। আমাদের লক্ষ্য এই মুহুর্তে খুলনা শহরের অপচনশীল বর্জ্য যা পরিবেশের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর সেগুলো ব্যবস্থাপনা করা। পরবর্তীতে আমরা সারাদেশ ব্যাপী আমাদের কার্যক্রম পরিচালিত করবো। ইজি ডোর বর্জ্যের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছে এবং পরিবেশকে সুন্দর রাখতে আমরা বদ্ধ পরিকর। আর তাই বর্জ্যের বিনিময়ে আমরা পরিবেশ বান্ধব গাছ প্রদান করছি। আমাদের প্রধান লক্ষ্য বর্জ্যকে শূণ্যের কোঠায় নামিয়ে আনা। শহরের বাড়িতে গাছ লাগানোর যায়গা হিসেবে বাড়ির ছাদ/ বারান্দা খুব উপযোগী জায়গা। বর্জ্যের বিনিময়ে গাছ নিয়ে সকলে যদি উৎসাহিত হয় তাহলে খুলনা শহরের পরিবেশ অনেক সুন্দর মনোরম হবে। যা সারা বিশ্বকে আমাদের চেনাবে। পাশাপাশি রাস্তার যেখানে সেখানে ময়লা না ফেলে নির্ধারিত স্থানে ময়লা ফেলে রাখবার জন্য আমরা সকলকে সচেতন করছি। আমাদের লক্ষ্য খুলনাসহ সারা বাংলাদেশকে বর্জ্যমুক্ত এবং সবুজ শহরে রূপান্তর করা।

ইজি ডোরের আরেক প্রতিনিধি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দূর্যোগ ও বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল মামন বলেন, পরিবেশের দূষণরোধ এবং সৌন্দর্য রক্ষা প্রত্যেক নাগরিকের দায়িত্ব ও কর্তব্য। বৈশ্বিক উষ্ণতা রোধকল্পে বৃক্ষ রোপন এবং সঠিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এখন সময়ের দাবি। আমরা তরুণরাই উদ্যোগ নিয়ে পারি আমাদের দেশকে পাল্টে দিতে।

Related posts