শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০১৯ ♦ ৭ বৈশাখ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

পিকনিকের বাস উল্টে স্কুল ছাত্রী নিহত, আহত ৩০

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনায় পিকনিকের বাস উল্টে মেঘলা নামে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রী নিহত ও অন্তত ৩০জন আহত হয়েছে। সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ডুমুরিয়া উপজেলার খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের চুকনগরের চাকুন্দিয়া নামক স্থানে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মেঘলা যশোর সদরের শ্যামনগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী। এছাড়া গুরুতর আহত হয়েছেন ১৫ জন। এরা হলেন-জেবা খাতুন (১৬), রেশমা (৩০), আব্দুল্লাহ (১১), নাসিরুল ইসলাম (৪০), রিয়া (১৪), আফরোজা(২০), আমেনা (৪৫), লাবনী (১৪), টুম্পা (১২), খাদিজা (১৫), সুমাইয়া (১৪), মাসুরা (১৩) জিনিয়া (১২), মমতাজ (১৫), নিলা (১৩), রামকৃঞ্চ বিশ্বাস (৪৮)। আহতদের মধ্যে জেবা খাতুন, রেশমা, আব্দুল্লাহ ও নাসিরুল ইসলামের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রেশমা হলেন স্কুলের সহকারী শিক্ষক, ধর্ম শিক্ষক, নাসিরুল ইসলাম, নাসিরুল ইসলামের ছেলে আবদুল্লাহ, বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষক, রামকৃঞ্চ বিশ্বাস ও স্কুলের আয়া আমেনা স্কুলের।
ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বলেন, যশোর সদরের শ্যামনগর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বাসে করে বাগেরহাটের ষাটগম্বুজ মসজিদের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। পথে ডুমুরিয়া উপজেলার চুকনগরের চাকুন্দিয়া নামক স্থানে এসে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি রাস্তা থেকে প্রায় ২০ ফুট নিচে উল্টে পড়ে। এতে বাসের নিচে চাপা পড়ে মেঘলা নামে একজন ছাত্রী নিহত হয়। এছাড়া অন্তত ৩০জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে ডুমুরিয়া উপজেলা কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে তাদের মধ্য থেকে আশঙ্কাজনকদের খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ উদ্ধার কাজ করে।
চুকনগর হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ (আইসি) উপ-পরিদর্শক ওমর ফারুক জানান, বাসটিতে সপ্তম, অষ্টম ও নবম শ্রেণির ৬০-৭০জন ছাত্রী ছিলো।
স্থানীয়রা জানান, রাস্তায় সংস্কার কাজ চলায় কারণে কার্পেটিংয়ের মধ্যে গর্ত রয়েছে। সেই গর্তে বাসটি আটকে যায়। আটকে যাওয়া বাসটি চালাতে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি রাস্তা থেকে অন্তত২০ ফুট খাদে উল্টে পড়ে।

Related posts