মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯ | ৫ কার্তিক ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

দুর্নীতি সমূলে বিনাশ করতে হবে: মেনন

স্টাফ রিপোর্টার: ব্যবস্থার বদল ছাড়া দুর্নীতির সর্বগ্রাসী আক্রমণ বন্ধ করা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি।

তিনি  বলেন, সারাদেশে দুর্নীতির বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করা হলেও দুর্নীতি এখন সর্বগ্রাসী রূপ নিয়েছে। দুর্নীতির বিরুদ্ধে বর্তমান সাময়িক অভিযান কিছু চমক সৃষ্টি করছে। এই দুর্নীতি সমূলে বিনাশ করতে হবে। 

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) নগরীর শহীদ হাদিস পার্কে ওয়ার্কার্স পার্টির খুলনা জেলা ও মহানগর সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

মেনন বলেন, দুর্নীতি প্রতিরোধ করতে হলে দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থার পাশাপাশি তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করতে হবে। কোনো অজুহাতেই দুর্নীতিগ্রস্তদের ছাড় দেয়া যাবে না।

পার্টির খুলনা জেলা সভাপতি কমরেড শেখ সহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে সম্মেলনের উদ্বোধনী সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য প্রফেসর ড. সুশান্ত দাস ও ইকবাল কবির জাহিদ। বক্তৃতা করেন কেন্দ্রীয় সদস্য দীপংকর সাহা দিপু, জেলা সাধারণ সম্পাদক মিনা মিজানুর রহমান, আনসার আলী মোল্লা, দেলোয়ার উদ্দিন দিলু, শেখ মফিদুল ইসলাম, এস এম ফারুক উল ইসলাম প্রমুখ।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড মেনন রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের দুরাবস্থা তুলে ধরে বলেন, বিজেএমসি পাটকলে মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন না করে পাটকল শ্রমিক ও পাট শিল্পের প্রতি এক দুষমনি আচরণ করা হচ্ছে। পাট শ্রমিকদের পিএফের টাকাও তারা পান না। অবসর সুবিধারতো প্রশ্ন নেই। এর মাধ্যমে সরকারি পাটকলগুলোকে ধ্বংসের দিকে ঠেলা দেয়া হচ্ছে। অথচ শেখ হাসিনার সরকার বন্ধ পাটকল চালু ও পাটশিল্প রক্ষার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। কতিপয় অধস্তন কর্মকর্তাদের পরিকল্পিত চক্রান্তে এ শিল্প ধ্বংস করা হচ্ছে।

সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন উন্নয়নের পাশাপাশি ধন বৈষ্যম হ্রাস করার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান। একই সঙ্গে ওয়ার্কার্স পার্টির ২১ দফার ভিত্তিতে বাম বিকল্প শক্তি গড়ে তোলার জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

Related posts