মঙ্গলবার, ২০ অগাস্ট ২০১৯ ♦ ৪ ভাদ্র ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

ডেঙ্গু মোকাবিলায় জরুরি অবস্থা ঘোষণার দাবি ফখরুলের

এসবিনিউজ ডেস্ক: ডেঙ্গু নিয়ে সরকারকে রাজনীতি না করে পরিস্থিতি মোকাবিলায় জরুরি অবস্থা ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২ আগস্ট) ধানমন্ডির ল্যাবএইড হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনারসহ কয়েকজন রোগীকে দেখার পর সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমি এখানে কয়েকজন ডেঙ্গু রোগীকে দেখলাম। সারাদেশেই এটা ছড়িয়ে পড়েছে। আমরা বিশেষজ্ঞদের কাছে শুনতে পাচ্ছি এটা কনটিনিউ করবে। এ কারণে একটি জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে জরুরি অবস্থার ভিত্তিতে এর মোকাবিলা করা দরকার সম্মিলিতভাবেই। আমরা মনে করি, এখন অন্য রাজনীতি না করে দ্রুত মানুষকে বাঁচানোর জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

মশার ওষুধ বিদেশ থেকে জরুরিভিত্তিতে আনার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, আপনারা একটা জিনিস খেয়াল করলে দেখবেন, বাংলাদেশ কিন্তু এখন সরকার চালায় না। মানে প্রশাসন কিংবা বিমান মন্ত্রণালয় বাংলাদেশ চালাচ্ছে না। বাংলাদেশ চালাচ্ছে এখন বিচার বিভাগ। 

আদালতের হুকুম হয় তারপরে কথা-বার্তা হয়, নড়াচড়া করে। ডেঙ্গু প্রতিরোধ করার ক্ষেত্রে তারা সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। আমরা মনে করি ওদিকে না গিয়ে অবিলম্বে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে জরুরিভিত্তিতে নেওয়া উচিত। 

তিনি বলেন, প্রত্যেক পরিবার এখন দুচিন্তাগ্রস্ত। বিশেষ করে শিশুদের নিয়ে। আমি এখন দেখে এলাম তারা অনেকেই বেশ সংকটাপন্ন অবস্থায় আছে। আমার মনে হয়, সরকারের উচিত হবে আর কালবিলম্ব না করে সংশ্লিষ্ট সবার কাছ থেকে এবং আমাদের যারা চিকিৎসক আছেন তাদের সবার কাছ থেকে পরামর্শ নিয়ে কাজ করা উচিত।

এসময় দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য অধ্যাপক একেএম আজিজুল হক, ড্যাবের অধ্যাপক হারুন আল রশিদ, অধ্যাপক আবদুস সালাম, ডা. আবদুস সেলিম, ডা. জহিরুল ইসলাম সাকিল, ডা. এটিএম ফরিদ, ডা. শাহ আমানউল্লাহ, ডা. এফরানুল হক সিদ্দিকী, ডা. পারভেজ রেজা কাকন বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান উপস্থিত ছিলেন।

Related posts