বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ♦ ৪ আশ্বিন ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

টি-২০ সিরিজ জিতলো নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক:ওয়ানডেতে না পারলেও ভারতের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ জিতলো স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। আজ াফযযভা সিরিজ নির্ধারনী তৃতীয় ও শেষ টি-২০ ম্যাচে ভারতকে ৪ রানে হারায় কিউইরা। ফলে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। এর আগে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ৪-১ ব্যবধানে জিতেছিলো বিরাট কোহলির দল। তবে রোহিত শর্মার অধীনে টি-২০ সিরিজ হারলো ভারত।
হ্যামিল্টনে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্বান্ত নেয় ভারত। ইনিংস শুরু করে ব্যাট এ ম্যাচেও ভালো ইনিংস খেলেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার টিম সেইফার্ট ও কলিন মুনরো। ৪৬ বলে ৮০ রানের জুটি গড়েন তারা। প্রথম টি-২০ ম্যাচে ৮৬ রানের জুটি গড়েছিলেন তারা। সেইফার্ট ২৫ বলে ৪৩ রান করে থামলেও হাফ-সেঞ্চুরি তুলে বড় ইনিংস খেলার পথে হাটচ্ছিলেন মুনরো।
শেষ পর্যন্ত পাঁচটি করে চার ছক্কায় ৪০ বলে ৭২ রান করে কুলদীপ যাদবের বলে থামেন মুনরো। দ্বিতীয় উইকেটে অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের সাথে ৩৪ বলে ৫৫ রানের জুটি গড়েন মুনরো।
দুই ওপেনারের দুর্দান্ত ব্যাটিং-এর পর দলকে বড় স্কোরের পথ নিয়ে গেছেন নিউজিল্যান্ডের পরের দিকে ব্যাটসম্যানরা। ভারতীয় বোলারদের উপর চড়াও হয়ে খেলেন উইলিয়ামসন, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, ড্যারিয়েল মিচেল ও রস টেইলর। তাদের ছোট ছোট কার্যকর ইনিংসের কল্যাণে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ২১২ রানের বড় সংগ্রহ পেয়ে যায় নিউজিল্যান্ড।
উইলিয়ামসন ৩টি চারে ২১ বলে ২৭, ডি গ্র্যান্ডহোম ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ১৬ বলে ৩০ রান করে আউট হন। তবে মিচেল ১৯ ও টেইলর ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন । মিচেলের ইনিংসে ৩টি চার ও টেইলরের ইনিংসে ১টি করে চার-ছক্কা ছিলো। ভারতের পক্ষে কুলদীপ যাদব ২৬ রানে ২টি উইকেট নেন।
জয়ের জন্য ২১৩ রানের টার্গেটে দলীয় ৬ রানে ওপেনার শিখর ধাওয়ানকে হারায় ভারত। শুরুতে ধাওয়ানকে হারালেও দুর্দান্ত এক জুটিতে ভারতকে লড়াইয়ে ফেরান অধিনায়ক রোহিত শর্মা ও বিজয় শঙ্কর। মাত্র ৪৬ বল মোকাবেলা করে ৭৫ রানের জুটি গড়েন রোহিত ও বিজয়। এরমধ্যে ২৮ বলে ৪৩ রান অবদান রেখে স্যান্টনারের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন বিজয়।
বিজয়ের বিদায়ে উইকেটে গিয়েই মারমুখী মেজাজ নেন ঋসভ পান্থ। ৩টি ছক্কা ও ১টি চারে দ্রুততার সাথে রান তুলতে থাকেন তিনি। কিন্তু ১২ বলে ২৮ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি, শিকার হন টিকনারের। এরপর ৪ রানের ব্যবধানে রোহিত, হার্ডিক পান্ডিয়া ও মহেন্দ্র সিং ধোনিকে হারিয়ে চাপে পড়ে ভারত। ৩ উইকেটে ১৪১ থেকে ৬ উইকেটে ১৪৫ রানে পরিণত হয় ভারত। রোহিত ৩২ বলে ৩৮, পান্ডিয়া ১১ বলে ২১ ও ধোনি ২ রান করে ফিরেন।
হঠাৎ ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া ভারতকে লড়াই রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা করেন দিনেশ কার্তিক ও ক্রুনাল পান্ডিয়া। কার্তিক-পান্ডিয়ার চার-ছক্কায় ম্যাচে ভালোভাবেই টিকে ছিলো। তবে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৬ রান দরকার পড়ে ভারতের। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের পেসার টিম সাউদির করা শেষ ওভার থেকে ১১ রান নিতে পারে ভারত। শেষ পর্যন্ত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২০৮ রান তুলে ম্যাচ ও সিরিজ হারে টিম ইন্ডিয়া। কার্তিক ৪টি ছক্কায় ১৬ বলে ৩৩ ও পান্ডিয়া ২টি করে চার-ছক্কায় ১৩ বলে ২৬ রান তুলে অপরাজিত থাকেন। নিউজিল্যান্ডের মিচেল স্যান্টনার-মিচেল ২টি করে উইকেট নেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন নিউজিল্যান্ডের মুনরো ও সিরিজ সেরা হন সেইর্ফাট।

Related posts