বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | ১ কার্তিক ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

জীব নিরাপত্তা বিধানে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ : কৃষিমন্ত্রী

এসবিনিউজ ডেস্ক: কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, জীব নিরাপত্তা বিধানে বাংলাদেশ প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বাংলাদেশ জাতিসংঘ জীব বৈচিত্র সনদের আওতায় গ্রহীত জীবনিরাপত্তা বিষয়ক কার্টাহেনা চুক্তি অনুযায়ী জীব নিরাপত্তা বিধানের বিষয়ে প্রতিশ্রুতবদ্ধ। বাংলাদেশসহ বিশ্বের ১৭০টি দেশ কার্টাহেনা চুক্তিতে সাক্ষর করেছে। জীবনিরাপত্তার ব্যাপারে বাংলাদেশ সব সময় সচেষ্ট।

রাজধানীর ওয়েস্টিন হোটেলে শনিবার ৩ দিনব্যাপী আয়োজিত ৭ম অ্যানুয়াল সাউথ এশিয়া বায়োসেফটি কনফারেন্স এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, আধুনিক জীবপ্রযুক্তি সংক্রান্ত গবেষণা ও উন্নয়ন এবং এর ব্যবহার উৎপাদিত পণ্য পরিবহন, আমদানি ও রপ্তানির ক্ষেত্রে পূর্ব সতর্ককতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

তিনি বলেন, আধুনিক জীব প্রযুক্তির অপার সম্ভাবনা ও সুফলের পাশাপাশি পৃথিবীব্যাপী এর ঝুঁকির বিষয়ে নানা গবেষণা আর জল্পনা কল্পনা চলছে। জীববৈচিত্র আর মানব স্বাস্থ্য অটুট না থাকলে আমাদের পিছিয়ে পড়তে হবে। প্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট সকল গবেষণা এবং এর প্রয়োগ যাতে মানুষ ও অন্যান্য জীবের কল্যাণে লাগে সেই চেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

বাংলাদেশের আমিষের জোগানে পোলট্রি শিল্পকে স্বীকৃতি দিতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পোলট্রি শিল্প বিকাশে জীব নিরাপত্তা বিশেষ ভূমিকা পালন করে। পোলট্রি পালনে মূল সমস্যা হচ্ছে খামার ব্যবস্থাপনা ও কিছু গুরুত্বপূর্ণ রোগ প্রতিরোধ করা। যদি খামার ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা অর্জন করা যায় তবে পোলট্রি পালন লাভজনক হয়। খামার ব্যবস্থাপনার মূল বিচার্য বিষয় হচ্ছে খামারে জীব নিরাপত্তা জোরদার করা।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যে বায়োসেফটি রুলস অব বাংলাদেশ ২০১২ এবং বায়োসেফটি গাইড লাইন অব বাংলাদেশ ২০০৮ প্রণয়ন করেছে। আমাদের রোগ প্রতিরোধের সব চাইতে সহজ ও কার্যকরী উপায় হচ্ছে জীব নিরাপত্তা । বসতবাড়ি থেকে খামার সব জায়গাতেই জীব নিরাপত্তা অর্থাৎ রোগের জীবাণু প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বায়োটেক কনসোর্টিয়াম ইন্ডিয়ার চিফ জেনারেল ম্যানেজার ড. বিভা আহুজা, বিশেষ অতিথি ছিলেন বন পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল্লাহ আল মহসিন চৌধুরী ও কৃষি সচিব মো. নাসিরুজ্জামান। বাসস

Related posts