শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯ ♦ ৮ ভাদ্র ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

গবেষণা কার্যক্রম: গ্লাসগোর সাথে খুবির সমঝোতা

স্টাফ রিপোর্টার: যুক্তরাজ্যের গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের আমন্ত্রণে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল বর্তমানে যুক্তরাজ্য সফরে রয়েছেন।
খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর স্যার এন্টন মুসকট ইল্লি (ঢ়ৎড়ভ. ঝরৎ অহঃড়হ গঁংপধঃ বষষর) এর সাথে গতকাল তাঁর কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। এসময় প্রতিনিধি দলের অন্য দুই সদস্য খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের নগর ও গ্রামীন পরিকল্পনা ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. শামীম মাহাবুবুল হক এবং একই ডিসিপ্লিনের সহকারী অধ্যাপক ও চলমান আন্তঃমহাদেশীয় সেন্টার ফর সাসটেইনেবল হেলদি এন্ড লার্নিং সিটিজ এন্ড নেইবারহুডস (ঈবহঃৎব ভড়ৎ ঝঁংঃধরহধনষব ঐবধষঃযু ধহফ খবধৎহরহম ঈরঃরবং ধহফ ঘবরমযনড়ৎযড়ড়ফং- ঝঐখঈ) প্রকল্পের বাংলাদেশ কান্ট্রি লিড ড. শিল্পি রায় ছাড়াও প্রকল্পের প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর প্রফেসর ইয়া পিং ওয়াং (ণধ চরহম ডধহম) উপস্থিত ছিলেন।
উভয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিশেষ করে শিক্ষা ও গবেষণার বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্বি-পাক্ষিক সহযোগিতার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। খুবি উপাচার্য বিশেষ করে আন্তর্জাতিক মানের গবেষণার বিষয়ে গাøসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন। এ বিষয়ে গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন এবং তাঁর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিকমানের গবেষণা কার্যক্রমের বিভিন্ন গবেষণাগার ও স্থাপনা পরিদর্শন ও অভিজ্ঞতা লাভের সানুগ্রহ সুযোগ প্রদান করেন। এ পরিপ্রেক্ষিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধি দলটি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক গবেষণা কার্যক্রমের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিবর্গের সাথে যৌথ গবেষণা কার্যক্রম জোরদার করার কর্মসূচি প্রণয়নের লক্ষ্যে ৪টি দ্বি-পাক্ষিক সভায় মিলিত হন। উভয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যৌথ গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনায় সম্মত হন এবং তা ত্বরান্বিত করার পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণে একমত পোষণ করেন। এ সফরটির মূল লক্ষ্য হচ্ছে, নগর গবেষণার জন্য বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে কীভাবে অধিকতর সক্রিয় পরিবেশ সৃষ্টি করা যায় তা পর্যালোচনা করা। প্রতিনিধিদল সেখানে অবস্থানকালে গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা কার্যক্রম ও গবেষণা সহযোগিতার প্রক্রিয়াগুলোর বিভিন্ন দিক জানার চেষ্টা করবেন এবং চলমান প্রকল্পের অগ্রগতি নিয়েও পর্যালোচনা করা হবে। গুরুত্বপূর্ণ এই সফর খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা কার্যক্রম ত্বরান্বিত করতে নতুন উদ্ভাবনী ধারনা দেবে বলে আশা করা হচ্ছে। উল্লিখিত আন্তঃমহাদেশীয় গবেষণা প্রকল্পের ইমপ্যাক্ট অ্যাক্টিভিটিজের আওতায় এ সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। যুক্তরাজ্য সফরকালে খুবি উপাচার্যের নেতৃত্বে এ প্রতিনিধি দলটি সেখানকার লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয় সফর করবেন এবং সেখানেও যৌথ শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম নিয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

Related posts