সোমবার, ২৭ মে ২০১৯ ♦ ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা রোববার (১২এপ্রিল) খুলনা জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলাল হোসেনের সভাপতিত্বে তাঁর সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।
সভায় পাটকল শ্রমিক অসন্তোষ, পরিবহণে চাঁদাবাজি, ফিটনেসবিহীন যানবাহন, খাদ্যদ্রব্যে ভেজাল, ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণসহ জনগুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
সভায় অংশ নিয়ে জেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির উপদেষ্টা শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেন, রাষ্ট্রায়াত্ত্ব পাটকলগুলোর শ্রমিকদের মজুরী আওয়ামী লীগ সরকার প্রায় দশ গুণ বৃদ্ধি করেছে যা বেসরকারি পাটকলগুলোর চেয়েও অনেক বেশি। তারপরও কিছু অসাধু শ্রমিকনেতা উষ্কানি দিয়ে শ্রম অসন্তোষ তৈরির চেষ্টা করছে। তিনি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শ্রমিকদের বকেয়া মজুরী পরিশোধ করে চলমান সংকটের সমাধান করার আশ^াস প্রদান করেন।[
কমিটির আরেক উপদেষ্টা খুলনা-৬ আসনের সংসদস সদস্য মো. আকতারুজ্জামান বাবু বলেন, কয়রা পাইকগাছা এলাকায় অনেকেই সাধারণ মানুষের জমি জোর করে দখল করে মাছের ঘের তৈরি করেছে কিন্তু জমি বাবদ কোন অর্থ তাদের দেওয়া হচ্ছে না। এ ধরনের জবর দখলের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তিনি প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানান।
সভায় পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ জানান, আসন্ন বৌদ্ধ পূর্ণিমা অনুষ্ঠানে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশের পক্ষ থেকে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এছাড়া আসন্ন ঈদের ছুটিতে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে বাসের ছাদে ভ্রমণ না করার জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান। পুলিশ কোন ধরনের চাঁদাবাজি করবে না এবং কাউকে চাঁদাবাজি করতে না দেওয়ার ব্যাপারে তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
সভাপতি মোহাম্মদ হেলাল হোসেন বলেন, রমজানে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি এবং খাদ্যে ভেজালরোধে নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করছে প্রশাসন। তিনি মানুষের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ব্যবসা করার জন্য ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান।
সভায় সিভিল সার্জন এস এম আব্দুর রাজ্জাক বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউএনওসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
খুলনা জেলা অধিক্ষেত্র গত এপ্রিল মাসে চুরি ৮টি, খুন ১টি, অস্ত্র আইন ২টি, অপহরণ ১টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ১১টি, মাদকদ্রব্য ১০৮টি এবং অন্যান্য আইনে ৭৭টি সহ মোট ২০৮টি মামলা দায়ের হয়েছে। জেলা অধিক্ষেত্র মার্চ ২০১৯ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৯৫টি। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে গত মাসের তুলনায় ১৩টি মামলা বৃদ্ধি পেয়েছে।
খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্র এপ্রিল মাসে চুরি ৬টি, খুন ১টি, অস্ত্র আইন ২টি, ধর্ষণ ২টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ১৩টি, মাদকদ্রব্য ১৯৭টি এবং অন্যান্য আইনে ৩৯টি সহ মোট ২৬০টি মামলা দায়ের হয়েছে। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্র মার্চ ২০১৯ মাসে এ সংখ্যা ছিল ২৮৫টি। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে গত মাসের তুলনায় ২৫টি মামলা হ্রাস পেয়েছে।

Related posts