সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

খুলনায় বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ উপলক্ষে র্যা লি ও আলোচনা সভা

স্টাফ রিপোর্টার: ১ থেকে ৭ আগস্ট সারা দেশের মতো খুলনায়ও পালিত হচ্ছে বিশ্ব মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ। সপ্তাহ পালন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার খুলনা জেনারেল হাসপাতালের সভাকক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনার সিভিল সার্জন ডাঃ এএসএম আব্দুর রাজ্জাক। খুলনা সিভিল সার্জন অফিস ও জেনারেল হাসপাতাল যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।       

সপ্তাহের এবারের প্রতিপাদ্য ‘শিশুকে মাতৃদুগ্ধ পান করাতে মাতা-পিতাকে উৎসাহিত করুন’।          

খুলনা জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমানের  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ সরাফত হোসেন, ডাঃ উৎপল কুমার চন্দ্র এবং গাইনী বিশেষজ্ঞ ডাঃ আঞ্জুমান আরা বেগম। স্বাগত জানান ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আতিয়ার রহমান শেখ। সভা পরিচালনা করেন সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আবুল কালাম আজাদ।     

বক্তারা বলেন, শিশুর সুষ্ঠু শারীরিক বৃদ্ধি ও মানসিক বিকাশের জন্য মায়ের দুধের কোন বিকল্প নেই। মায়ের দুধের মধ্যে সকল পুষ্টিগুণ রয়েছে। জন্মের পর পরই এক ঘন্টার মধ্যে শিশুকে শাল দুধ খাওয়াতে হবে। শাল দুধ শিশুর জীবনের প্রথম টিকা হিসেবে কাজ করে। মায়ের দুধ খাওয়ালে শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় এবং শিশুর অসুস্থতা ও মৃত্যুর ঝুঁকি কমে। শিশু জন্মের পর থেকেই ছয় মাস পর্যন্ত শুধুমাত্র মায়ের বুকের দুধ পান করাতে হবে। তাঁরা আরও বলেন, মাতৃদুগ্ধ পানের উপকারিতা সম্পর্কে মা সহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যদেরও সচেতন করে তুলতে হবে। একজন মা যদি সঠিকভাবে শিশুকে ব্রেস্টফিডিং করান   তাহলে স্তন ক্যান্সারে ঝুঁকি কম থাকে। সরকারি ও বেসরকারি দপ্তরের ব্রেস্টফিডিং কর্ণার স্থাপন করা হয়েছে।       

আলোচনা সভার পূর্বে  জেনারেল হাসপাতাল চত্ত্বর থেকে র‌্যালি শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে ডাক্তার, নার্স, এনজিও প্রতিনিধি এবং বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

Related posts