শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

‘এক টুকরো বাংলাদেশ’

এসবিনিউজ ডেস্ক: বিজয় দিবস উপলক্ষে একাডেমিক অ্যাওয়ার্ড ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ স্কুল মাস্কাট। বিগত বছরের ভালো ফলাফলের ভিত্তিতে ছাত্র-ছাত্রীদের সম্মাননা প্রদান, দেশীয় গানে বিদেশিদের নৃত্য ও বাংলাদেশি পণ্যের বিভিন্ন স্টল, সবমিলে বিদেশের মাটিতে রূপ নেয় এক টুকরো বাংলাদেশের।

ওমানে প্রবাসীদের জন্য বছরে যে কয়টা বড় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়, তার ভেতর এই অনুষ্ঠানটি অন্যতম। স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী থেকে শুরু করে সকল প্রবাসীরা সারাবছর অপেক্ষায় থাকেন এই অনুষ্ঠানের জন্য।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বাংলাদেশ স্কুল মাস্কাটে ঘটা করে পালন করা হয় বিজয় দিবস ২০১৮। ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন পারফরমেন্সে দর্শকদের মাতিয়ে রাখে পুরো অনুষ্ঠানজুড়ে। শুরুতে কুরআন তেলোওয়াত করেন স্কুলের শিক্ষার্থীরা। এরপর স্কুলের সার্বিক বিষয় নিয়ে বক্তব্য দেন চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম।

স্কুলের নতুন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল ফারজানা কারিম, সবশেষে রাষ্ট্রদূত গোলাম সরওয়ার বক্তব্য রাখেন। বিগত বছরে ভালো ফলাফলকারী ছাত্র-ছাত্রীদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন ইঞ্জিনিয়ার আশ্রাফ, ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম, স্কুলের বোর্ড মেম্বার, দূতাবাসের সচিব আনোয়ার হোসেন, স্কুলের প্রিন্সিপাল ও রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সরওয়ার।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাস, সোশ্যাল ক্লাব, চট্টগ্রাম সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এবারও স্কুলটি ভালো ফলাফলে এডেক্সেল রেজাল্টে গাল্ফে তিন নম্বর অবস্থান অর্জন করেছে। ইতোপূর্বে স্কুলটির রেজাল্ট সারা বিশ্বে তিন নম্বরে ছিল। স্কুলটির এমন অর্জনে খুশি ওমান প্রবাসীরা।

বর্তমানে এ স্কুলে বাংলাদেশি ছাড়াও ১৮টি দেশের শিক্ষার্থী রয়েছে। দৃষ্টিনন্দন সবুজ মাঠ যেন স্কুলের সৌন্দর্য আরো ফুটিয়ে তুলেছে। যেদিকে চোখ যায় সেদিকেই শুধু বাংলাদেশি। প্রায় চার থেকে পাঁচ হাজার প্রবাসীর মিলনমেলায় পরিণত হয় এক টুকরো বাংলাদেশের। কেমন যেন প্রবাসের মাটিতে দেশের অনুভূতি। মাঠের একপাশে বাংলাদেশি বিভিন্ন স্টলে শোভা পাচ্ছে দেশীয় বিভিন্ন পণ্য। সেইসঙ্গে শপিং প্রিয় মানুষদের ভিড় ও ছিল লক্ষণীয়। ওমানের মাটিতে এমন একটি আয়োজনে বেশ খুশি প্রবাসীরা।

এলিজা তারিনের মনোমুগ্ধকর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের সৌন্দর্য যেন আরো ফুটিয়ে তুলেছে। অনুষ্ঠানে সব থেকে আকর্ষণীয় ছিল বিদেশি ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন পারফরমেন্স, বাংলাদেশি জনপ্রিয় সংগীত ‘দয়াল বাবা কলা খাবা গাছ লাগাইয়া খাও’ গানে বিদেশিদের নৃত্য দর্শকদের নিয়ে যায় মুগ্ধতার শেষ সীমানায়।

বাংলাদেশ স্কুল মাস্কাটের এই অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাড়াও ওমান, মিসর, পাকিস্তান, ইন্ডিয়ান, আফ্রিকাসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রবাসীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

Related posts