রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

অতীতে শিক্ষকদের ব্যক্তিত্ব, আদর্শ ছিলো অনুসরণীয়: উপাচার্য

স্টাফ রিপোর্টার: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে প্রভাষক পদে যোগদানকারী শিক্ষকদের সাথে এক পরিচিতিমূলক অনুষ্ঠান মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) উপাচার্যের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান যোগদানকৃত নতুন শিক্ষকদেরকে শিক্ষকতার মতো মহৎ পেশা বেছে নেয়ার জন্য আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, ভালো শিক্ষক হতে হলে সবসময়ই পড়াশোনা, জ্ঞান চর্চা তথা গবেষণা নিয়ে ভাবতে হবে। কারণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকের দায়িত্ব কেবল পাঠদানই নয়, তাঁর দায়িত্ব শিক্ষাদান ও গবেষণা।

উপাচার্য বলেন, আবেদনকারীদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সর্বোচ্চ মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দিয়েছেন। তিনি নতুন শিক্ষকদেরকে নিবেদিতভাবে কাজ করার আহবান জানান। তিনি বলেন শিক্ষকদের কেবল টাকার পেছনেই ছুটলে চলবে না তাদেরকে অবশ্যই আদর্শ শিক্ষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে। তিনি বলেন বাণিজ্যিক মনোভাব নিয়ে কোনোদিন আদর্শ শিক্ষক হওয়া যায় না এবং শিক্ষার্থীরাও সেই শিক্ষকের নিকট থেকে ভালো কিছু শিখতে পারে না। আদর্শ শিক্ষক হতে হলে নিরন্তর জ্ঞান চর্চা ও গবেষণায় আগ্রহী হতে হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন অতীতে শিক্ষকদের আর্থিক দীনতা থাকলেও তাদের ব্যক্তিত্ব, আদর্শ ও আভিজাত্য ছিলো অনুসরণীয়। তাদেকে অনুসরণ করেই আদর্শ শিক্ষার্থী তৈরি হয়েছে।

পরিচিতি অনুষ্ঠানে নতুন শিক্ষকদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা জানিয়ে আরও বক্তব্য দেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস। এছাড়া নিয়োগপ্রাপ্ত ১২ জন প্রভাষক তাদের স্ব স্ব অভিব্যাক্তি প্রকাশ করে বলেন তাদের প্রচেষ্টা থাকবে আদর্শ শিক্ষক হওয়া এবং নিরন্তর গবেষণা করা। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ভালো কিছু করার এবং ভালো কিছুর দেওয়ার সর্বাত্মক চেষ্টা তারা করবেন যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাংকিংয়ে আরও উপরে উঠতে পারে। 

Related posts