রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯ ♦ ২ আষাঢ় ১৪২৬

Select your Top Menu from wp menus

‘অগ্নিকন্যা-জননেত্রী’ থেকে ‘দেশনেত্রী’ মমতা

প্রসেনজিৎ চৌধুরী: দীর্ঘসময় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, পরে মুখ্যমন্ত্রী৷ হিন্দি বলেন কিন্তু তাতে আপামর অ-হিন্দিভাষীর মতোই উচ্চারণ ও ক্রিয়াপদের ভুল প্রকট হয়৷ স্বাভাবিক৷ খুবই স্বাভাবিক৷ কিন্তু সেই অশুদ্ধ হিন্দিভাষিনী মমতা শনিবার থেকে দেশনেত্রী৷ তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী-এসব তকমা পিছনে থেকে গেল৷ আর ভাঙা হিন্দিতেই বিরোধী শক্তির সর্বময় নেত্রী হিসেবে আবির্ভূত হলেন৷
তৃণমূল কংগ্রেসের বিগ্রেড জনসমাবেশের রাজনৈতিক নাম ‘ইউনাইটেড ইন্ডিয়া’ অর্থাৎ ‘এক ভারত’৷ এই মঞ্চ থেকেই কেন্দ্রের বিজেপি ও এনডিএ সরকার বিরোধী অবস্থান নিয়ে প্রবল প্রতিরোধের বার্তা দিয়েছেন তাবড় তাবড় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব৷ কে নেই এই তালিকায়৷ ফারুখ আবদুল্লা থেকে অখিলেশ যাদব৷ স্ট্যালিন-কুমারস্বামী থেকে গেগাং আপাং এবং প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দেবেগৌড়া৷ উত্তর দক্ষিণ পূর্ব পশ্চিম চারদিক এক ব্রিগেডে৷
বিজেপি এবং তার চালিকা শক্তি সংঘ পরিবারের অন্যতম লক্ষ্য- হিন্দি-হিন্দু-হিন্দুস্তান৷ আর সেই তত্ত্বকে ধাক্কা দিয়েই বিবিধের মাঝে মিলনের সূত্র রচনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হিন্দি অনবদ্য৷ ঠিক যেমনটা ছিল প্রয়াত বাজপেয়ীর৷ দুই তুখোড় বক্তার ভাষণে বারবার দুলেছে ভারত৷ কিন্তু কলকাতায় যে ব্রিগেড মিটিং হল তাতে সামিল হয়েছিলেন হিন্দি বলয়ের প্রথম সারির বিরোধী রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা৷ অখিলেশ সিং যাদব, অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আগুন ঝরা ভাষণ বা উর্দু-হিন্দি মিশ্রিত কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লার ভাষণে জনতা উদ্বেলিত হয়েছেন৷
এসবের মাঝেই মঞ্চ পরিচালনায় মাঝে মধ্যে মমতা মাইক ধরেছেন৷ অশুদ্ধ হিন্দিতেই বলেছেন৷ তাতেই অতিথি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা মুগ্ধ৷ এখানেই ভেঙে গিয়েছে সেই সংঘের তত্ত্ব৷
হিন্দি ও উর্দু ভারতে প্রচলিত৷ লিঙ্গ ভেদে এই দুই ভাষার ক্রিয়াপদ পাল্টে যায়৷ সেটা খেয়াল করতে পারেননা অ-হিন্দি, অ-উর্দুভাষীরা৷ যেমনটা হয়েছে মমতার ক্ষেত্রে৷ তবে ভাষার বাঁধ কাটিয়েই তাঁর রাজনৈতিক অবস্থান যে দ্রুত ভারতময় ছড়িয়ে পড়ছে তা পরিষ্কার হয়ে গেল বিগ্রেড থেকেই৷ লোকসভা নির্বাচনের আগে তিনিই হয়ে গেলেন বিরোধী জোটের মুখ৷
আর এখান থেকেই তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রীর পরিচয় পাল্টে যাচ্ছে৷ যে বাংলায় তিনি প্রবল বিরোধী নেত্রী হিসেবে অগ্নিকন্যা রূপে পরিচিত হয়েছিলেন৷ সেই বাংলা থেকেই দেশনেত্রীর তকমা পেয়ে গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷
বিগ্রেড-ই নতুন করে চিনিয়ে দিল অশুদ্ধ হিন্দিতে কথা বলা আগামী দেশনেত্রীকে৷

Related posts